এক সপ্তাহের মধ্যে নাশকতাকারীদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে-মুক্তিযোদ্ধামন্ত্রী

0

বাংলাদেশেরপত্র ডেস্ক:
আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নাশকতাকারীদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেন, নাশকতাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অবরোধ ও হরতাল দিয়ে দেশে নৈরাজ্য করছে বিএনপির ২০ দলীয় জোট। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই নাশকতাকাdownloadরীদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসক পরিষদ ও মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসক কমান্ডের আয়োজিত সভায় মোজাম্মেল হক বলেন, অবরোধের নামে যারা গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও পেট্রোল বোমা মেরে মানুষ হত্যা করছে এ সব নাশকতাকারীদের আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ঠাণ্ডা করে দেয়া হবে। তিনি বলেন, গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী আমরা জানতে পেরেছি- প্রথম টার্গেট হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছে নাশকতাকরীরা। প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকে বাধাগ্রস্ত করতে চাচ্ছে জামায়াত-জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা। তবে এ ধরনের নাশকতাকারীদের মোকাবেলা করতে সরকার প্রস্তুত রয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া অফিসে আরামেই আছেন। এটা ছিল তার পূর্ব পরিকল্পনা। তিনি ইচ্ছা করে বাসায় ফিরছেন না। খালেদা জিয়া অবরোধ নাটকের মাধ্যমে জনগণের সহমর্মিতা আদায় করতে চাচ্ছেন। আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. মো. সিরাজুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংসদের সদস্য ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) হেলাল মোর্শেদ খান, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মাহমুদ হাসান প্রমুখ।

Leave A Reply

Pinterest
Print