এবার তথ্য ফাঁসের অভিযোগ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের

0
এবার তথ্য ফাঁসের অভিযোগ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের

এবার তথ্য ফাঁসের অভিযোগ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের

এবার হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁসের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশনের ‘জটিল’ কোড ভেঙে নাকি ব্যবহারকারীদের তথ্য জানতে সক্ষম হয়েছে চ্যাটওয়াচ নামের এক বিশেষ অ্যাপ। কিন্তু শনিবার এক বিবৃতিতে তথ্য ফাঁসের অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ।

হোয়াটসঅ্যাপ এর দাবি, তথ্য ফাঁস নিয়ে চ্যাটওয়াচ নামে যে অ্যাপের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে, তা ঠিক নয়। ব্যবহারকারীদের খুব সামান্য তথ্য হোয়াটসঅ্যাপ সংগ্রহ করে থাকে। কারণ হোয়াটসঅ্যাপ এর প্রতিটি মেসেজ ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্টেড’ অর্থাৎ সুরক্ষিত। ‘আপনার বন্ধু বা পরিবারের কাউকে করা কোনো মেসেজে আমরা আড়ি পাতছি না’ বলেন হোয়াটসঅ্যাপের মুখপাত্র।

হোয়াটসঅ্যাপেরও মালিকানা ফেসবুকের। ২০১৪ সালে এই মালিকানা হস্তান্তর হয়। বর্তমানে হোয়াটসঅ্যাপের গ্রাহক সংখ্যা ১০০ কোটির বেশি। সম্প্রতি একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়, চ্যাটওয়াচ নামে একটি অ্যাপের মাধ্যমে গোপনে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের কথাবার্তায় আড়ি পাতা হচ্ছে।

ওই অ্যাপের সাহায্যে হোয়াটসঅ্যাপের কনট্যাক্ট লিস্টে উঁকি মারতে পারবেন যে কেউ। কে কতক্ষণ কার সঙ্গে কথা বলছেন, বা সাধারণত কতটা সময় সে হোয়াটস অ্যাপ করেন, তা-ও জেনে ফেলা যাবে সহজেই। এমনকি ওই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী কখন ঘুমতে যান বা ক’টার সময় ঘুম থেকে ওঠেন, তা-ও নাকি জেনে দিতে পারে অ্যাপটি। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Leave A Reply

Pinterest
Print