কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে খোলা আকাশের নিচে পাঠ দান

0

news 100

এখলাছ উদ্দিন, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় গণমানপুররা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিল্ডিং পরিত্যাক্ত ঘোষনা করায় খোলা আকাশের নিচে দুইশতাধিক শিক্ষার্থীকে পাঠদান দেওয়া হচ্ছে। তাই এলাকার জনসাধারন ও ভুক্তভোগীরা এ বিষয়ে সংশিস্নষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করে জরম্নরী প্রতিকার চেয়েছেন। সংশিস্নষ্টসূত্রে জানাযায়, উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়নের গণমানপুরম্নরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৯৯৫ সালে নির্মিত ভবনটির ছাঁদ ছুষে পানি পরে পস্নাস্টার খসে পড়েছে। তাছাড়া বিদ্যালয়ের মূল ভিম ফেটে ডেবে যাওযায় উপজেলা প্রকৌশলী আবু ইউসুফ বিদ্যালয়টিকে পরিত্যাক্ত ঘোষনা করেন। ফলে দুর্ঘটনা এড়াতে শিক্ষার্থীদের খোলা আকাশের নিচে নিয়মিত পাঠদান করা হচ্ছে। এতে বর্ষার মৌসুমে বৃষ্টির পূর্বাভাস দেখাদিলেই ছাত্র-ছাত্রীদের ছুটি দিতে বাধ্য হচ্ছেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। এরপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক-শিক্ষিকাদেরও চরম ভুগান্তির শিকার হতে হচ্ছেন। সরেজমিনে আজ মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) স্কুলে গিয়ে দেখা যায়, কর্তব্যরত ৪ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা ও দুইশতাধিক ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করাচ্ছেন। এ সময় প্রধান শিক্ষক মোঃ রুকুন উদ্দিন জানান, স্কুল বিল্ডিং পরিত্যাক্ত ঘোষনা করায় খোলা আকাশের নিচে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাস করাতে হচ্ছে। তাছাড়া দীর্ঘ দিন যাবৎ স্কুলের দরজা-জানালা না থাকায় অনেক বেঞ্চ ইতিমধ্যে চুরি হওয়ায় পাঠদানে চরম সমস্যা হচ্ছে। তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এই প্রতিষ্ঠানে প্রায় চারশত শিক্ষার্থী ছিল। পাশের হারও ছিল শতভাগ। খোলা আকাশের নিচে পাঠদান করায় অনেক অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদের স্কুল থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন। এই এলাকার অধিকাংশ অভিভাবক গরীব হওয়ায় এখনো দুইশতাধিক শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে রয়েছে। তবে এভাবে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান দিতে থাকলে স্কুলটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এব্যাপারে হোসেনপুর উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সাদেকুর রহমান জানান,গণমানপুরম্নরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবনটি যে কোন সময় ধসে পড়তে পারে। ভবন ধসের কথা মাথায় রেখে দূর্ঘটনা এড়াতে খোলা আকাশের নিচে পাঠ দান দেওয়া হচ্ছে। ইতিপূর্বে নতুন ভবন র্নিমানের জন্য বরাদ্ধ চাওয়া হয়েছে।অতি দ্রম্নত সময়ের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

Leave A Reply

Pinterest
Print