কুষ্টিয়ায় চরমপন্থি নেতা রবির গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার

0
Jhenidah death body recovary photo (3)

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় একটি ধানক্ষেতে রবি’র গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ দেখে এলাকাবাসী।

মনিরুজ্জামান সুমন,ঝিনাইদহ থেকে: ঝিনাইদহ, শৈলকুপা, মাগুরা ও শালিখা থানায় হত্যা, অস্ত্রবাজী ও চান্দাবাজীর ১২টি মামলা এবং ৪৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী রবিউল ইসলাম ওরফে বেড়ে রবির গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোবরা গ্রামের ধানক্ষেত থেকে শুক্রবার সকালে গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়,শুক্রবার সকালে গোবরা গ্রামের কৃষকেরা ধানক্ষেতে একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করে। রবি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকপুর ইউনিয়নের পরানপুর গ্রামের শুকুর আলী মোল্যার ছেলে। সে দীঘীদন ধরে নিষিদ্ধ চরমপন্থি সংগঠন বিপ্লবী কমিউনিষ্ট পার্টির আঞ্চলিক নেতা হিসাবে কাজ করতো। ১৯৯৯ সালে যশোর সার্কিট হাউস মাঠে পুলিশের কাছে অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণ করে। এরপরও সে সন্ত্রাসীমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত ছিল। কিছুদিন পর সে যশোরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গুলিসহ পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। তারপর থেকেই সে জেলে ছিল। সম্প্রতি জামিনে মুক্ত হয়ে সে ঝিনাইদহ এলাকায় একটি গ্যাং গ্র“প তৈরী করে ত্রাসের রাজত্ব গড়ে তোলে।

ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার গোপীনাথ কাঞ্জিলাল এবং কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহিবুল ইসলাম জানান,নিহত রবি ৪৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী। সাজা কমানোর জন্য সে উচ্চ আদালতে আপিল করে। অপর একটি মামলায় হাজিরা দিতে খুলনা যাবার পথে পুলিশের কাছ থেকে পালিয়ে যায়।

Leave A Reply

Pinterest
Print