কুড়িগ্রামে শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা

0

Kurigram Winter Vt-2 001

 

 

 

 

 

 

শাহ্ আলম, কুড়িগ্রাম :
কুড়িগ্রামে শীত ও ঠান্ডার তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ডায়রিয়া, নিওমোনিয়া, সর্দ্দি, কাশিসহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষজন। এদের মধ্যে অধিকাংশই শিশু ও বৃদ্ধ। গত ৩দিনে কুড়িগ্রাম সদর হাসপালে আউটডোর ও ইনডোরে চিকিৎসা নিয়েছে প্রায় সহ¯্রাধিক রোগী। এদের মধ্যে ডায়রিয়া, নিওমোনিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যাই বেশী।
১৬টি নদ-নদী বেষ্ঠিত উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামে শীত জেকে বসেছে। শীতের সাথে উত্তরীয় হীমেল হাওয়ায় কাহিল হয়ে পড়েছে চর-দ্বীপচর ও নদী তীরবর্তী এলাকার মানুষজন। প্রচন্ড ঠান্ডায় যুবুথুবু হয়ে পড়েছে গোটা জনপদ। শীত ও ঠান্ডা নিবারনে গরম কাপড় না থাকায় নিদারুন কষ্টে দিন পাড় করছে শ্রমজীবি ও নি¤œ আয়ের মানুষজন। ঘন কুয়াশার কারনে দিনভর সুর্য্য আলো ছড়াতে পারছে না। শীত নিবারনে মানুষজন খড়কুটো জ্বালিয়ে উষ্ণতা নেয়ার চেষ্টা করছে।
কনকনে ঠান্ডায় মানুষজন আক্রান্ত হচ্ছে ডায়রিয়া, নিওমোনিয়া, সর্দ্দি, কাশিসহ শীতজনিত নানা রোগে। এদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যাই বেশী।
কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা আফরোজা বেগম জানান, ঠান্ডা লেগে আমার বাচ্চার ডায়রিয়া হয়েছে। হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। এখনও ভালো হয় নাই। ডাক্তার বলছে সময় লাগবে। তাই হাসপাতালে পড়ে আছি।
হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা আর এক শিশু রোগীর অভিভাবক, সালমা জানান, তার ছেলের বয়স ৬ মাস। শীতের কারনে প্রথমে শর্দি পরে শ্বাসকষ্টে ভুগতেছে। হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। ডাক্তার দেখেছে। নিওমনিয়া হয়েছে কিনা ডাক্তার এখনও জানায়নি।
হাসপাতালগুলোতে স্থান সংকুলান না হওয়ায় অনেক রোগীকে মেঝেতেই চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। তবে শীত জনিত রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি সামাল দিতে চিকিৎসকদের হীমসীম খেতে হচ্ছে।
কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ নজরুল ইসলাম জানান, কুড়িগ্রামে শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় প্রতিদিনই শীত জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে রোগীরা হাসপাতালে আসছে। বিশেষ করে ডায়রিয়া, কাশি, শর্দিসহ শ্বাসকষ্ট জনিত রোগীর সংখ্যা বেশি। আমরা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে তাদের সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছি।
রংপুর আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়া বিদ আতিকুর রহমান জানান, এ অঞ্চলের সর্বনি¤œ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

 

Leave A Reply

Pinterest
Print