কোচ সাম্পাওলির বিরুদ্ধে মেসিদের বিদ্রোহ!

0

আর্জেন্টিনা তখন ১-০ গোলে পিছিয়ে। ক্রোয়েশিয়ার দুর্দান্ত ফুটবলের সামনে কঠিন পরীক্ষা দেওয়া লাতিন আমেরিকার দলটির কোচ হোর্হে সাম্পাওলি তুলে নিলেন সের্হিয়ো আগুয়েরোকে, ম্যাচের তখনও ৩৬ মিনিট বাকি। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে লক্ষ্যভেদ করা ম্যানচেস্টার সিটি ফরোয়ার্ডের কাছে ম্যাচ শেষে বদলির কারণ জানতে চেয়েছিল এক টিভি চ্যানেল। প্রশ্নটা শুনে, ‘যান, সাম্পাওলিকে জিজ্ঞেস করুন, তিনি কী চান’- বলেই দিয়েই হাঁটা দিলেন আগুয়েরো।

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হারের পর ওটা ছিল সাম্পাওলির ‘বিরুদ্ধে’ আগুয়েরো ‘প্রতিবাদের স্বর’। মাঠ থেকে তুলে নেওয়ার বিষয়টি পছন্দ হয়নি বলেই হয়তো ক্ষোভ ঝরেছিল এই ফরোয়ার্ডের কণ্ঠে। তবে এই প্রতিবাদের আওয়াজ নাকি আর্জেন্টিনার ড্রেসিং রুমে ছড়িয়ে গেছে বলেই এখন গুঞ্জন। শুধু আগুয়েরো নন, দলের কোনও সিনিয়র খেলোয়াড় নাকি খুশি নন সাম্পাওলির কোচিং দর্শনে। আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম ‘টিওয়াইসি স্পোর্তস’ থেকে শুরু করে ব্রিটিশ পত্রিকা ‘ডেইলি মেইল’, ‘ডেইলি মিরর’ ও স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক ‘এএস’- সবারই খবর, নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে ডাগআউটে সাম্পাওলিকে চাইছেন না মেসিরা।

‘টিওয়াইসি স্পোর্টস’-এর খবর, সাম্পাওলির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছেন খেলোয়াড়রা, গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচেই নতুন কোচ চাইছেন তারা। ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে গোল করে জেতানো হোর্হে বুরুচাগার সঙ্গে নাকি আলোচনাও হচ্ছে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এএফএ)। এমনও শোনা যাচ্ছে, নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বিশ্বকাপ জয়ী এই ফরোয়ার্ডকে নাকি দেখা যাবে আর্জেন্টিনার ডাগআউটে।

স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক ‘এএস’ অবশ্য জানিয়েছে অন্য খবর। মাদ্রিদভিত্তিক ক্রীড়া দৈনিক ছেপেছে, নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গ্রুপের শেষ ম্যাচে আর্জেন্টিনার কোচ সাম্পাওলিই থাকছেন, গ্রুপ পর্বে ব্যর্থ হলে চাকরি হারানোর সম্ভাবনা তার প্রবল। তবে খেলোয়াড়দের বিদ্রোহ করার বিষয়টিও উঠে এসেছে তাদের প্রতিবেদনে।

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলের হারের দায় নিজের কাঁধে নিয়েছেন সাম্পাওলি। চিলির সাবেক এই কোচ জানিয়েছেন, তার পরিকল্পনার সবকিছু ভেস্তে গেছে। দায় কাঁধে নিয়ে বলেছেন, ‘আমার প্রকল্প ব্যর্থ’। ব্রিটিশ দৈনিক ‘ডেইলি মেইল’ এই বিষয়টির সঙ্গে সাম্পাওলির বিরুদ্ধে খেলোয়াড়দের বিদ্রোহের খবরটি সামনে এনেছে। ৫৭ বছর বয়সী এই কোচের কোচিং তত্ত্ব, খেলোয়াড় নির্বাচন ও পরিকল্পনায় তারা রীতিমত হতাশ। তাই গ্রুপের শেষ ম্যাচে আর তাকে কোচ হিসেবে চাইছে না মেসিরা।

‘কোচ হটাও’ গুঞ্জনের সঙ্গে বাতাসে উড়ছে আরেকটি খবর। আর্জেন্টিনা গ্রুপ পর্ব পেরোতে না পারলে নাকি অবসরে যাবেন মেসি ও আগুয়েরো! ‘মিরর’ আর্জেন্টিনা ক্যাম্পের নির্ভরযোগ্য একটি সূ্ত্রের বরাত দিয়ে ছেপেছে, দলের নির্ভরযোগ্য এই দুই তারকার সঙ্গে রাশিয়ার টুর্নামেন্টের পর আর্জেন্টিনাকে বিদায় বলতে পারেন মার্কোস রোহো, এভার বানেগা, আনহেল দি মারিয়া, হাভিয়ের মাসচেরানো ও গনসালো হিগুয়েইনের মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়রা।

২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার শতবর্ষী উপলক্ষে ‘বিশেষ কোপার’ ফাইনালে হারের পরও উঠেছিল সিনিয়র খেলোয়াড়দের অবসরের গুঞ্জন। পুরোটা না হলেও মেসির অবসরে কিন্তু কিছুটা হলেও সত্যি হয়েছিল তা। তবে খেলোয়াড়দের অবসরের চেয়ে বড় ইস্যু এখন কোচ নিয়ে মেসিদের বিদ্রোহ। ডেইলি মেইল, মিরর, এএস

Leave A Reply

Pinterest
Print