খুলনায় সোনাইমুড়ী জোড়া হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে হেযবুত তওহীদের সংবাদ সম্মেলন

0

হাসানুর রহমান রনি, খুলনা।

দুই বছরেও বিচারের মুখ দেখেনি সোনাইমুড়ীর চাঞ্চল্যকর জোড়া খুন ও ধ্বংসযঞ্জের মামলা। পেশীশক্তি ও রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে আসামীরা। গত দুই বছর আগে ১৪ মার্চ এই দিনে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে হেযবুত তওহীদের নিরীহ দুই সদস্যকে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয় এবং আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয়, ধ্বংস করে দেওয়া হয় বসতবাড়ি ও নির্মাণাধীন মসজিদ । মসজিদ নির্মাণকে গির্জা বলে অপপ্রচার ও গুজব রটিয়ে সংঘবদ্ধ ভাবে চালানো হয় বর্বরোচিত এই হামলা।

গতকাল খুলনা প্রেসক্লাবে খুলনা জেলা হেযবুত তওহীদের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে উক্ত ঘটনার বিচারের দাবি জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন হেযবুত তওহীদের খুলনা জেলা সভাপতি হাসানুর রহমান রনি, সাধারণ সম্পাদক ডা মো মাকসুদে মাওলা, সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার খাইরুল আজম প্রমুখ। এসময় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়।
সম্মেলনে  মামলার বর্তমান পরিস্থিতি ও দাবি গুলো তুলে ধরে লিখিত  বক্তব্যে বলা হয়, ঘটনার দুই বছর চলে গেলেও মামলার কোন অগ্রগতি নেই। চার্জশিট দাখিল হয় নি, বরং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে হাসিলের জন্য অপ প্রচেষ্টা চলছে, এজাহার ভুক্ত অধিকাংশ আসামীদের গ্রেফতার করা হয় নি, গ্রেফতারকৃতদের অনেকেই সহজ জামিন নিয়ে এলাকায় দাপটের সাথে ঘুরে বেড়াচ্ছে, হুমকি ধামকির কারণে আক্রান্তদের অনেকেই বাড়িঘরে ফিরতে পারছে না।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে হেযবুত তওহীদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় ঘটনাটি যেন কোনভাবেই রাজনৈতিক স্বার্থে ব্যবহার না করা হয়। আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের আওতায় আনতে হবে।
গুজব ও উদ্দেশ্যমূলক বেআইনি ফতোয়া দ্বারা মানুষের ধর্মবিশ্বাসকে ভুল খাতে প্রবাহিত করে এধরনের পৈশাচিক ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন বাংলাদেশে আর না ঘটে সেজন্য  সোনাইমুড়ীর এই ঘটনাটি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে সংবাদ কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

জে-থার্টিন,খুলনা

Leave A Reply

Pinterest
Print