গলাচিপায় প্রবাসীর স্ত্রী ৫ বছরে শিশু সন্তানকে রেখে এক যুবকের সাথে পালিয়েছে

0

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:  পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায় শিশু সন্তানকে রেখে স্বামীর সাত ভরী স্বর্ন ও ৫ লক্ষ টাকা সহ এক যুককের সাথে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী সুরাইয়া জাহান শিল্পী।  জানা যায়  গত ১৩ বছর পূর্বে বাঁশবাড়িয়া গ্রামের মৃত আঃ রশিদ খানের ছেলে প্রবাসী মোঃ হোসেন খানের সাথে তার বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের ৫ বছর বয়সী জান্নাতুল নামের একটা কন্যা সন্তান রয়েছে।   গত ২১ জুন ১৮ইং তারিখে বৃহস্পতিবার আনুমানিক বেলা ১০ টার সময় মোঃ হোসেন খানের স্ত্রী সুরাইয়া জাহান শিল্পী ও মোঃ কাইয়ূম হাওলাদারের সাথে পালিয়ে যায়  । বাদীর অভিযোগ পত্রের বিবরণী থেকে জানা যায, বিয়ের চার বছর পরে দুবাই তার কর্ম জীবন শুরু করে সব মিলিয়ে বর্তমানে প্রায় ৯ বছর যাবৎ দুবাই আসা যাওয়া করেছেন। স্বামী বিদেশে থাকা কালীন সময়ে স্ত্রী সুরাইয়া জাহান শিল্পী তার পিতার বাড়ি থাকতো  সুবাদে পাশের বাড়ির হাবিব হাওলাদারের ছেলে মোঃ কাইয়ূম হাওলাদারের সাথে পরকিয়া সম্পর্কে গড়ে উঠে এবং প্রেমের ফাঁদে পরে নিয়মিত অবৈধভাবে দৈহিক সম্পর্কে লিপ্ত হতো।  আরো উল্লেখ করেন যে, মোঃ নুরু হাওলাদারের ছেলে বাদলের স্ত্রী নারগিস সবসময় কাইয়ূম হাওলাদারের সাথে সুরাইয়া জাহান শিল্পী কে অবৈধ সম্পর্ক চালাতে সাহায্য করে আসছে। দুবাই থাকা অবস্থায় স্ত্রীর পরকিয়া সম্পর্ক জানতে পেরে ঘটনার ৫ দিন পূর্বে দেশে আসেন মোঃ হোসেন খান । বিদেশে থেকে আসার পর স্ত্রীর সুরাইয়া জাহান শিল্পীর নিকট পাঠানো টাকার ব্যাংক হিসাব দেখতে চাইলে স্ত্রী দেখাতে টালবাহানা করতে থাকে। স্ত্রীর নামে উত্তরা ব্যাংক গলাচিপা শাখায় চলিত হিসাব নং ৭৯৮৬ একাউন্টে ২৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, ৭ ভরী স্বর্ণ অলংকার পাঠায়। এ ব্যপারে মোঃ হোসেন খান  বলেন, আমার প্রবাস জীবনে উপার্জিত সবকিছু নিয়ে আমায় সর্বশান্ত করে পালিয়ে গেছে আমার স্ত্রী, এখন আমার আত্ব হত্যা ছাড়া আর কোন উপায় নাই। স্বামী মোঃ হোসেন খান বাদী হয়ে  গত ২১ জুন ২০১৮ ইং তারিখে  স্ত্রী সুরাইয়া জাহান শিল্পী ও মোঃ কাইয়ূম হাওলাদারের নামে গলাচিপা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

j-thirteen

Leave A Reply

Pinterest
Print