গুরুদাসপুরে গরুর হাটে পুলিশ-জনতার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

0

পুলিশ-জনতার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি. পবিত্র ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে নাটোরের গুরুদাসপুর থানা পুলিশ রোববার দুপুরে নয়াবাজারের নতুন গরু হাটের ক্রেতা-বিক্রেতা ও স্থানীয় জনগণকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়ার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয় জনগণ ও গরু ক্রেতা বিক্রেতারা ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশকে ধাওয়া করে তাড়িয়ে দেয়।
নয়াবাজার হাটের ইজারাদার মাজেদুর রহমান রিন্টু জানান, তিনি এক বছরের জন্য ৭ লাখ ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে হাটটি ইজারা নিয়েছেন। কিন্তু এসআই আব্দুল মোতালেবের নেতৃত্বে গুরুদাসপুর থানা পুলিশের একটি চৌকষ বাহিনী ওই গরুর হাটটি ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে। এসময় হাটে আগত গরু ক্রেতা বিক্রেতা এবং স্থানীয় জনগণ পুলিশকে ধাওয়া দিয়ে হাট থেকে বের করে দেয়। তিনি অভিযোগ করে জানান, বৈধভাবে সরকারের কাছ থেকে হাটটি ইজারা নিয়েছি। কিন্তু পুলিশ বাড়াবাড়ি করে হাটটি ভেঙ্গে দেয়ার চেষ্টা করছে।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন জানান, মাজেদুর রহমান রিন্টু নিলামের মাধ্যমে সরকারকে টাকা দিয়ে হাট ইজারা নিয়েছে। তবে নয়াবাজার হাটে কি হয়েছে তা তিনি জানেন না।
এ ব্যাপারে মুঠোফোনে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোবারক হোসেন বলেন, এখন স্যারের সাথে কথা বলছি, আপনার সাথে পরে কথা বলবো।
থানার অফিসার ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা সেকেন্ড অফিসার সুব্রত কুমার মাহতোর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি বারবার ফোনটি কেটে দেন।

Leave A Reply

Pinterest
Print