চুনারুঘাটে নাতি ও ছেলের দা’য়ের কোপে বৃদ্ধা আহত

0

news-p-1চুনারুঘাট(হবিগঞ্জ)প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার পাইকপাড়া ইউনিয়নের জমসেরপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হেকিমের স্ত্রী বৃদ্ধা মরিয়ম চাঁন (৭০) কে ছেলে ও নাতির দা’য়ের কোপে দাদী গুরুতর আহত হয়েছেন। জানা যায়, গত মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে মরিয়ম চাঁনের নিজ বসতবাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। ওই দুঃখিনী মাতা বৃদ্ধা মরিয়ম চাঁনকে বেদড়ক মারপিট করে ও মাথায় ও ডান হাতে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে তার পুত্র আঃ মন্নান ও নাতি ফয়েজ মিয়া। পরে দুঃখিনী মাতাকে ওই পাষন্ড পুত্রের ঘরের বাথরুমে ১ ঘন্টা থালাবদ্ধ করে রাখে। পরে বৃদ্ধা মরিয়ম চাঁনের আত্মচিৎকারে স্থানীয় এলাকাবাসীরা চুনারুঘাট থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বৃদ্ধা মরিমম চাঁনকে উদ্ধার করে আশংকাজনক অবস্থায় চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত বৃদ্ধা দাদী মরিয়ম চাঁন জানান, আমার ছেলে ও ছেলের ঘরে নাতি বসতবাড়ির ৫ শতক ভিটে জমি নিয়ে কেন্দ্র করে এক পর্যায়ে আমার ছেলে আঃ মন্নান (৪৫) এর সাথে কথাকাটাকাটি হয়। এ সময় আঃ হন্নানের ছেলে ফয়েজ (২০) উত্তেজিত হয়ে ধারালো দা দিয়ে দাদী বৃদ্ধা মরিয়ম চাঁনের মাথায় ও ডান হাতে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে বৃদ্ধা মাতা মরিয়ম চাঁন চুনারুঘাট থানায় বাদী হয়ে ছেলে ও নাতি দুইজনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনাস্থলটি পরিদর্শন করে এসআই আরিফ। উল্লেখ্য যে, বৃদ্ধা মরিয়ম চাঁন তার পুত্র আঃ মন্নান ও নাতি ফয়েজ মিয়াকে আসামী করে হবিগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের করলে ওই মামলা তুলে আনার জন্য এরই জের ধরে ছেলে ও নাতির দায়ের কুপে বৃদ্ধার মাথা ও ডান হাতে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। চুনারুঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। ছেলে ও নাতিকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করবেন জানান।

Leave A Reply

Pinterest
Print