জীবননগর গ্রামীণ জনপদে গাছিদের খেজুর গাছ কাটার ধুম

0

6জীবননগর প্রতিনিধি:  চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার সর্বত্র রস আহরনের মধুবৃক্ষ খেজুর গাছ কাটা আরম্ব হয়েছে ।আর মাত্র কয়েক দিন পরেই গ্রামবাংলার গৌরব আর ঐতিহোর প্রতীক মধুবৃক্ষকে ঘিরেগ্রামীণ জনপদে আরম্ব হবে এক উৎসবমুখর পরিবেশ । খেজুর গাছ অন্য সময়ে কেউ না মানলেও শীতের সময় ঠিকই সকল মানুষ শহর থেকে ছুটে আমে গ্রামে এ জন্য কে মধুবৃক্ষ নামেও অনেকে আক্ষায়ীত করে থাকেন । মধুবৃক্ষ থেকে গাছিরা সংগ্রহ করবে সুমিষ্ঠ খেজুর রস, রস থেকে তৈরি হবে গুড় ও আকর্ষনীয় পাটালী । রস জ্বালীয়ে ভিজানো সুস্বাধু পিঠা ধুম পড়বে এ উপজেলার প্রতিটি গ্রামে । নতুন গুড়ের কোন তুলনা নেই । গ্রাম বাংলার সম্ভাবনাময় অর্থনৈতিক এ খাতে সরকারী কোন সাহায্য না পাওয়ায় বর্তমানে আগের মত রস,গুড়,পাটালী উৎপাদন হয়না ।সুঘ্রান নলেন গুড় এ উপজেলার সমস্থ গ্রামেই পাওয়া যায় । তবু চাহিদার তুলনায় অনেক কম।তাই যে রস, গুড়, পাটালী উৎপাদন হয় তা নিয়ে শীতের সকালে আরম্ব হয় রীতিমত কাড়াকুড়ি।জীবননগর উপজেলার গঙ্গাদাশপুর গ্রামের খেজুরগাছি মজনু বলেন এ বছর আবহাওয়া ভালো থাকায় গাছিরা সকলেই অন্য বছরের তুলনায় এবার আগে থেকেই খেজুর গাছ কাটা আরম্ব করেছে ।এদিকে গাছিদের গাছ কাটার প্রতিযোগিতা দেখে ব্যস্থ সময় পার করছেন কুমোররা তারা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্থ মাটির তৈরি ভাড় নিয়ে ব্যস্থ সময় পার করছেন । এ উপজেলার অনেক চাষিরা তাদের আবাদি জমির আইলে বাণিজ্যিক ভাবে খেজুর গাছের বাগান করতে আরম্ব করেছে । তাই এ উপজেলার খেজুর বাগান চাষিদের দাবি যদি সরকারী ভাবে পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এটি বাণিজ্যিক ভাবে অধিক পরিমান খেজুর রস, গুড়, পাটালী রপ্তানী করা সম্ভব বলে ধারনা করছেন ।

Leave A Reply

Pinterest
Print