ঝিনাইদহ শৈলকুপায় ১৯ বছর পর থানা আওয়ামীলীগের সম্মেলন-উৎসাহ-উদ্বেগ আর শো-ডাউন শুরু

0

Shailkupa Lig- Council pic 14-03-2015শিহাব মল্লিক, শৈলকুপা: ১৯ বছর পর ১৯ মার্চ উৎসাহ-উদ্বেগ আর শো-ডাউনের মধ্যে দিয়ে শুক্রবার শুরু হচ্ছে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন। সরবে নড়েচড়ে উঠেছে থানা সদর থেকে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। শহর জুড়ে ডিজিটাল বোর্ড-ব্যানার আর মটর শোভাযাত্রায় প্রার্থীরা সরগরম রাজনীতির মাঠ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। নেতা হওয়ার শক্ত বিশ্বাসে এরই মধ্যে থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সম্পাদক পদের প্রার্থীরা বিভিন্ন মাধ্যমে জানান দিয়ে চলছেন। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক থাকলেও প্রার্থীদের মটর শোভাযাত্রা এবং বিভিন্ন হাটবাজারে শোডাউনের কারনে উত্তপ্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

তথ্য অনুসন্ধানে জানা গেছে, ১৯৯৭ সালে শৈলকুপা থানা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল অধিবেশনে আবুল আহসান সিদ্দিক সভাপতি এবং শিকদার মোশারফ হোসেন সোনা সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন। পরবর্তিকালে আবুল আহসান সিদ্দিক মারা গেলে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হন ১১নং নিত্যানন্দনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব বাবর আলী বিশ্বাস। তিনি সভাপতি পদে আসিন হলেও দলীয় কার্যক্রমের সিংহভাগই চালিয়েছেন সাধারণ সম্পাদক শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনা। বছরের পর বছর দফায় দফায় মিছিল-মিটিং মিডিয়া ফলোআপ এবং জেলা ও কেন্দ্র পর্যায়ে অভিযোগের কমতি নেই শৈলকুপা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল নিয়ে, প্রথম কমিটিভুক্ত ভোটারদের মধ্যে রাজনৈতিক যুদ্ধে মারা গেছেন অনেকে, আবার কেউ কেউ বয়:ভারে একেবারেই ন্যুয়ে পড়েছেন। অবশেষে বহু আকাঙ্খিত শৈলকুপা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন এখন দোরগোরায় পৌঁছেছে।
শৈলকুপার প্রত্যন্ত এলাকায় আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের খবর ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন আর নতুন হিসাব নিকাশ। ৭নং হাকিমপুর ইউনিয়নের প্রবীণ আওয়ামী রাজনীতিবিদ ও শিক্ষক আব্দুল আজিজ মাষ্টার জানান, জেলা ও কেন্দ্র পর্যায়ের নানা জটিলতার কারনে অনেক দেরিতে হলেও ত্রি-বার্ষিক এ কাউন্সিলে সাধারণ ভোটাররা খুশি। তিনি আশা করেন স্বচ্ছ ও জবাবদিহি মুলক নতুন একটি কমিটি হবে যা শৈলকুপাগণ মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত থাকবে। ৫নং কাঁচেরকোল ইউনিয়নের বয়বৃদ্ধ প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন ঝন্টু বলেন, থানা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল তাঁর জীবদ্দশায় দেখে যাবেন এমন আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন, হঠাৎ কাউন্সিলের খবরে শুনে খুব উচ্ছসিত আওয়ামীলীগের এ বৃদ্ধ মানুষটি। সম্মেলনে এখন পর্যন্ত একক প্রার্থী হিসেবে উপজেলা চেয়ারম্যান শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনা ও সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান চেয়ারম্যান সাব্দার হোসেন মোল্লা, মতিয়ার রহমান, মোস্তফা আরিফ রেজা মন্নু ও থানা যুবলীগের সভাপতি রানাউজ্জামান বাদশা’র নাম শোনা যাচ্ছে। এসব প্রার্থীদের মধ্যে সভাপতি প্রার্থী শিকদার মোশাররফ হোসেন সোনা নির্বিঘেœ সময় কাটালেও ঘুমহীন মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন, দীর্ঘদিন ধরেই আলোচনায় থাকা ৮নং ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ক্লিনইমেজধারী চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে এখন পর্যন্ত শক্ত অবস্থানে রয়েছেন ৯নং মনোহরপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান মোস্তফা আরিফ রেজা মন্নু। অনেকটা নাটকীয়ভাবে ১৩ নং উমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান সাব্দার হোসেন মোল্লা এবং থানা যুবলীগ সভাপতি স.ম. রানাউজ্জামান বাদশা হঠাৎ করেই সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থীতা করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।
নানা জল্পনা-কল্পনার মধ্যে শৈলকুপায় টক-অবদ্য টাউনে পরিনত হয়েছে শৈলকুপা থানা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল তবে সবচেয়ে বেশি আলোচিত হচ্ছে মতিয়ার রহমান ও আরিফ রেজা মন্নুর নাম। তারা সম্পাদক পদের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই জোর লবিং-গ্র“পিং চালিয়ে আসছেন। মজার ব্যাপার সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় সাধারণ সম্পাদক নির্বাচনে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার শেষে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচনের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তবে একটি গ্র“প গণভোটের মাধ্যমে প্রকাশ্য ঘোষণা আশ্বাসে থাকলেও অন্যরা কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে গোপন ভোটের মধ্যদিয়ে সুন্দর কাউন্সিল আশা করছেন।
শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, এখন পর্যন্ত আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাকি রয়েছে, কাউন্সিলকে ঘিরো নিরাপত্তা আরো জোরদার করা হবে।

Leave A Reply

Pinterest
Print