তিস্তা নদীর ভাঙনে দিশেহারা দহগ্রাম চরাঞ্চলের ৫ শতাধিক পরিবার

0

রমজান আলী, পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি ঃ
লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম ইউনিয়নের বুক চিরে বয়ে যাওয়া তিস্তা নদীর ভাঙনে দিশেহারা হয়ে পড়েছে চরাঞ্চলের প্রায় ৫ শতাধিক পরিবার।
প্রতিনিয়ত তিস্তার ভাঙনে আবাদী জমি, মাথা গোঁজার ঠাই হারিয়ে নিঃস্ব ও অসহায় হয়ে পড়ছেন পরিবার সমূহ। সরজমিনে তিস্তা বাম তীর ঘুরে দেখা গেছে, একরের পর একর আবাদী জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। চরাঞ্চলের অধিবাসি হাফিজার রহমান (৫০), ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান হবি বজ্রশক্তিকে বলেন, বছরের পর বছর তিস্তার ভাঙনে চরাঞ্চলের বাসিন্দারা আবাদী জমি, বসতভিটা হারিয়ে অনাহারে- অর্থাহারে দিন যাপন করছেন। অনেকে ভিটেমাটি হারিয়ে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন। অনতিবিলম্বে ভাঙন রোধে ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে দহগ্রামের বিস্তৃণ ভূ- খন্ড তিস্তা নদী গর্ভে হারিয়ে যাবে। দহগ্রাম কাতিপাড়া এলাকার ময়নুল হক বলেন, যেভাবে তিস্তা নদী আবাদী জমি ভাঙছে তাতে আমরা অপূরনীয় ক্ষতির মুখে পড়ছি। প্রতিদিন নদীর ভাঙন অংশ থেকে আবাদী জমির ধানের ক্ষেত কেটে গবাদিপশুর খাদ্য হিসেবে নামমাত্র দামে বিক্রি করে কোনোমতে বেঁচে আছি।
এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে জানা গেছে, দহগ্রাম তিস্তা নদী ভাঙন রোধে একটি প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে। তারাতারি নদীতে বাঁধ নির্মাণ করা হবে।
দহগ্রাম আঙ্গরপোতার অধিবাসীরা নদীর ধারে স্পার নির্মাণসহ সমস্যার সমাধানে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave A Reply

Pinterest
Print