নরসিংদীর মেঘনায় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ ৬ জনের লাশ উদ্ধার

0

নরসিংদী প্রতিনিধি : নরসিংদীর মেঘনা নদীতে ঝড়ের কবলে পড়ে নৌকাডুবিতে একই পরিবারের চার শিশুসহ নিখোঁজ ছয় যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে মেঘনা নদী থেকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা লাশগুলো উদ্ধার করে।

উদ্ধারকৃতরা হলেন, সদর উপজেলার চরদীঘলদি ইউনিয়নের বগারগোত গ্রামের শাহাজ উদ্দিনের স্ত্রী নূরজাহান নুরী (৬০), একই গ্রামের রূপ মিয়ার স্ত্রী ফালানী বেগম (৬০), কালিকাপুর গ্রামের স্বপন মিয়ার মেয়ে ফারজানা (৮) এবং পাইকারচর ইউনিয়নের পাইকারচর গ্রামের ফারুক মিয়ার চার সন্তান উম্মে এ্যানি (৪), সুমাইয়া (৮) এবং ফয়সাল (৬)। এর আগে ফারুক মিয়ার আরেক সন্তান বায়েজিদকে (২) বৃহস্পতিবার রাতে উদ্ধার করা হয়। এ নিয়ে নৌকাডুবিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ায় সাতজন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে নরসিংদীর সদর উপজেলার বগারগোত গ্রামের মেঘনা নদীতে এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা বায়েজিদের লাশ উদ্ধার করেছিল।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলার পাইকারচর ইউনিয়নের পুরানচর থেকে ৬০/৭০ জন যাত্রীবোঝাই করে একটি যাত্রীবাহী ইঞ্জিনচালিত নৌকা একই উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের মেঘনা তীরবর্তী বগারগোত গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। নৌকাটি বগারগোত এলাকার কাছাকাছি মেঘনা তীরের অদূরবর্তী স্থানে পৌঁছার পর উত্তর দিক থেকে ধেয়ে আসা প্রচণ্ড ঝড়ের কবলে পড়ে। এতে নৌকাটি বাতাসের তোড়ে উল্টে পানিতে ডুবে যায়। এ সময় নৌকার যাত্রীরা পানিতে পড়ে চিৎকার করতে থাকে। অনেক যাত্রী সাঁতরে নদীর পাড়ে উঠতে সক্ষম হলেও নিখোঁজ থেকে যায় সাত যাত্রী। ঝড় থামার পর আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করে। ওই সময় বায়েজিদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

পরে নরসিংদীর ফায়ার সার্ভিস ও ঢাকা থেকে ডুবুরি দল নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারে মেঘনা নদীতে সন্ধান চালায়। শুক্রবার সকালে নিখোঁজ ছয়জনের লাশ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। মেঘনা বঙ্গাচর নৌ ফাঁড়ির পুলিশ ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক আনোয়ার হোসের জানান, উদ্ধারকৃত লাশগুলোর পরিচয় সনাক্ত করে পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে।

নরসিংদীর ফায়ার সার্ভিসের ওয়ার হাউস ইন্সপেক্টর রুহুল আমীন মোল্লা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Leave A Reply