নেত্রকোনায় জেলা শিক্ষা অফিসারসহ তিন জনের বিরুদ্ধে শিক্ষিকার মামলা

0

mamlaনেত্রকোনা প্রতিনিধি: জেলার আটপাড়া ধর্মরায় রামধন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরনো রেইন্ট্রি গাছ, পুরাতন টিন ও ইট বিক্রি করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা হয়েছে। ওই বিদ্যালয়ের বদলী হওয়া প্রধান শিক্ষিকা মাসুরা আক্তার শেলী সোমবার জেলা ও দায়রা জজ এবং সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এ কে এম রিয়াজ উদ্দিন, আটপাড়া উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফাতেমা সুলতানা ও বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবদুস সালামের বিরুদ্ধে মামলা করেন।
মামলার বিবরনে জানা গেছে, জেলার আটপাড়ার ধর্মরায় রামধন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুরা আক্তার শেলী অসুস্থ্যতা জনিত কারনে ছুটি নেন। এই সুযোগে গত ২৯ এপ্রিল বিদ্যালয়ের লক্ষাধিক টাকা মূল্যের একটি রেইন্ট্রি গাছ, বিদ্যালয়ের হাফ বিল্ডিংয়ের তিন কক্ষ বিশিষ্ট একটি টিনের ঘরের ৫০ হাজার টাকা মূল্যের দশবান টিন ও দশ হাজার টাকার ইট বিক্রি করে আসামীরা ক্ষমতার অপব্যবহার করে পরস্পর যোগসাজসে সম্পূর্ন টাকা আত্মসাৎ করেন। পরবর্তীতে ২ মে মামলার বাদী শিক্ষিকা মাসুরা আক্তার শেলী এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তাকে কোন সদুত্তর না দিয়ে উপযুক্ত শিক্ষা ও চাকুরীচ্যুত করার ভয় দেখান।
জেলা জজ আদালতের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবদুল কাদির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সুবিচারের আশায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
আটপাড়া উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফাতেমা সুলতানা বলেন, মামলার বিষয়ে আমার কোন কিছু জানা নেই। অফিসে গিয়ে খোঁজ নিয়ে দেখব।
নেত্রকোনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এ কে এম রিয়াজ উদ্দিন বলেন, কি বিষয়ে মামলা হয়েছে আমার জানা নেই। তবে বিদ্যালয়ের গাছ ও টিন বিক্রির বিষয়ে আমার জানা নেই।

Leave A Reply