নৌকায় ধর্ষণ: আটক দুইজন পাঁচদিনের রিমান্ডে

0
গাজীপুর: কালীগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে নৌকার মধ্যে প্রাণ-আরএফএল কোম্পানির এক নারী শ্রমিককে গণধর্ষণের ঘটনায় আটক ২ আসামি ফারুক ও শরীফকে ৫ দিন করে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে আদালত এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এদিকে ধর্ষণের শিকার তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষার বিষয়ে অবহেলার অভিযোগ উঠেছে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে।
গাজীপুর আদালতের ইন্সপেক্টর মো. রবিউল ইসলাম জানান, পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে শুক্রবার বিকেলে গ্রেফতারকৃতদের গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ফারজানা খানমের আদালতে হাজির করে। শুনানি শেষে আদালত তাদের প্রত্যেককে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ভোরে ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ থানায় নিয়ে আসলেও ৪৮ ঘণ্টা (২ দিন) অতিবাহিহত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়নি। ধর্ষিতা বর্তমানে থানায় পুলিশ হেফাজতেই রয়েছে। এদিকে স্থানীয়রা জানায়, অদৃশ্য কারণে গণধর্ষণের শিকার ওই নারী শ্রমিককে বৃহস্পতিবার ভোর থেকে বিকাল পর্যন্ত থানায় বসিয়ে রাখলেও ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠায়নি পুলিশ।
শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় ধর্ষিতা মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করতে শনিবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। ফলে একদিকে যেমন ধর্ষণের আলামত নষ্ট হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে অন্যদিকে দুই রাত দুই দিন ধর্ষিতাকে থানায় অবস্থান করতে হবে। যা অত্যন্ত অমানবিক।
এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, মামলা দায়ের ও আসামি গ্রেফতার নিয়ে সময় পার হয়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার এবং সরকারি ছুটি থাকায় শুক্রবারও ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা করা সম্ভব হয়নি। শনিবার হাসপাতালে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক থাকলে  তার ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে।
উল্লেখ্য, বুধবার রাতে পার্শ্ববর্তী পলাশ উপজেলার প্রাণ-আরএফএল কোম্পানির নারী শ্রমিক (১৮) ছুটি শেষে নিজ বাড়ি উপজেলার নারগানা গ্রামে ফেরার পথে একই কোম্পানির নৌকার ৪ মাঝি নারগানা খেয়াঘাট এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে ওই তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

Leave A Reply