নড়াইলে মা-মেয়ে মিলে দিন মজুর বাবাকে পিটিয়ে হত্যা

0

নড়াইলউজ্জ্বল রায়, নড়াইল: নড়াইল সদর উপজেলার আগদিয়ার চর গ্রামে বাবু সরকার নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা শেষে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। সুরতহাল প্রতিবেদন অনুযায়ী তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানা গেছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রতিবেশিরা জানায়,নিহত বাবু সরকার (৪৫) পানের বরজে দিন মজুরের কাজ করতো। তার দুই মেয়ে এক ছেলে। টুম্পা স্যানাল নামের এক মেয়েকে গ্রামে এবং আর এক মেয়েকে অন্য গ্রামে বিয়ে দিয়েছেন। ছেলে আশীষ সরকারও দিন মজুর। স্ত্রী সন্ধ্যা রানী সরকার (৩৫) গ্রামের বলয় বাগচীর সঙ্গে নাম সংকীর্ত্তণ করতে বিভিন্ন এলাকায় যেতেন। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই গোলযোগ বাধতো। বৃহস্পতিবার সকালে দুজনের মধ্যে এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। সন্ধ্যা রানী তার মেয়ে টুম্পাকে বাড়িতে ডেকে এনে মা ও মেয়েতে মিলে বাবু সরকারকে পিটিয়ে হত্যা শেষে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। শুক্রবার ওই এলাকায় গেলে বলয় বাগচীকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
এলাকার চৌকিদার বীরেন বিশ্বাস বলেন, মনে হচ্ছে বাবু সরকারকে পিটিয়ে হত্যা করে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়। তিনি বলেন,লাশ ঘরের যে আড়ায় ঝুলানো ছিল দাড়িয়ে সে আড়ার বাশ ধরা যায়। তিনি বলেন,সন্ধ্যা রানীর সঙ্গে বলয় বাগচীর সর্ম্পক ছিল। এ জন্যই দুজনের মধ্যে ঝগড়া-ফ্যাসাদ বাধতো। এলাকার লোকজন বিষয়টি জানতো। কিন্তু কেউ কিছু বলতো না।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত সুবাস কুমার বিশ্বাস বলেন,ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave A Reply