পিরোজপুরে ভারতীয় গরুর আমদানি ব্যবসায়ীদের লোকসানের আশঙ্কা

0

 

কেফায়েত উল্লাহ জিয়ানগর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি ঃ

কুরবানীর ঈদকে সামনে রেখে পিরোজপুরের জিয়ানগর উপজেলার ইন্দুরকানীতে বিশাল গরুর হাট বসে। এই হাটে ভারতীয় গরুর তুলনায় দেশীয় গরুর আমদানি চোখেপরার মতো। উপজেলার একমাত্র হাট হল ইন্দুরকানী গরুরহাট। ক্রেতার তুলনায় কিক্রেতা ও ব্যবসায়ী ছিল অধিক ।Zianagar

 

 

 

বৃষ্টির কারনে বিক্রেতারা পরছে বিপাকে। সামান্য লাভে তারা গরু বিক্রি করছে বলে জানান গরু ব্যবসায়ী মোঃ মন্টু মিয়া। প্রতিটি গরু ২০হাজার টাকা থেকে শুরু করে ১লক্ষ টাকা পযর্ন্ত ক্রয় বিক্রয় চলছে। তবে ব্যবসায়ীদের ধারনা তাদের প্রচুর পরিমান লোকসান গুনতে হবে বলে আশঙ্কায় রয়েছে। কেননা ভারতীয় গরুর আমদানিতে দেশিয় গরুর চাহিদা কম থাকায় খামার ব্যবসায়ীর পরছে বিপাকে। সামনের দিকে যত দিনযাচ্ছে গরুর দাম ক্রমাগত কমছে। খামার ব্যবসায়ী  মোঃ রমিজ উদ্দিন জানান আমরা সুনেছি যে ভারত থেকে গরু আসবেনা তাই আমরা অনেকেই গরুর খামার করি এবং চরাদামে গো খাদ্য কিনে গরু মোটাতাজা করে ও প্রকৃত দাম পাচ্ছিনা। গরু ব্যবসায়ী মোঃ আজাদ জানান আমি প্রায় ১৭ বছর যাবত গরু ব্যবসা কারি প্রতি বছরের ন্যায় এই বার আমি ৩২ টা দেশীয় গরু ক্রয় করি কিন্তু এই ইন্দুর কানী হাটে মাত্র ১৩ টা গরু বিক্রয় করি খুব সামান্য লাভে। মনে হচ্ছে কুরবানি দিন যত ঘনিয়ে আসছে গরুর দাম ক্রমাগত কমছে। হয়ত আমার লোকসান হবে। আর এই একই কথাছিল অনেক ব্যবসায়ীদের। তবে ধারনা করা হয় ভারত থেকে গরু আমদানি না হলে দেশীয় গরু খামার ব্যবসায়ীরা তাদের নায্য মূল্য পেতো।

বাংলাদেশের পত্র/এডিএমএম

Leave A Reply

Pinterest
Print