ফটিকছড়ির ১৪ ইউপি’র ১১টিতে আ.লীগ প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত

0

titul=kalsচট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায় ১৪ ইউনিয়নের মধ্যে ১১ টিতে আওয়ামী লীগ, একটিতে বিএনপি এবং দুটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়েছেন। তবে এর মধ্যে আওয়ামী লীগের চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী এর আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। নির্বাচনী যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়ে জয় পেয়েছেন সাতজন। রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো.রেজাউল করিম শনিবার রাত ১১টায় এ ফলাফল ঘোষণা করেন। এর আগে বিচ্ছিন্ন কিছু অপ্রীতিকর ঘটনার মধ্য দিয়ে ১৪ ইউনিয়নে শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
দাঁতমারা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জিতেছেন নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগ প্রার্থী জানে আলম। তিনি ২০ হাজার ২৪১ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ইদ্রিচ মিয়া (ধানের শীষ) পেয়েছেন ২১৩২ ভোট।
হারুয়ালছড়ি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ইকবাল হোসেন চৌধুরী স্বতন্ত্র (আনারস) ৬ হাজার ৫৯২ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জুলফিকার আলী (নৌকা) পেয়েছেন ৩ হাজার ২৫৫ ভোট।
রোসাংগিরী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে সোয়েব আল ছালেহীন (নৌকা) ৫ হাজার ৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি সাইফুদ্দিন (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৬০০ ভোট।
নারায়নহাট ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে হারুনুর রশিদ (নৌকা) ৮ হাজার ৫৩১ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আবু জাফর মাহমুদ (ঘোড়া) পেয়েছেন ৩৭৬৮ ভোট।
পাইন্দং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে এ কে এম সরোয়ার হোসেন (ধানের শীষ) ৪ হাজার ৩৫৭ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ নুরুল বশর নবী (আনারস) পেয়েছেন ৩ ‍হাজার ৯৫৫ ভোট।
বখতপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মো. সোলায়মান (নৌকা) ৫ ‍হাজার ৫৩৩ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মো. জাহাঙ্গীর (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৩২৮ ভোট।
কাঞ্চননগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে রশিদ উদ্দিন চৌধুরী কাতেব (আনারস) ৭ হাজার ৫৬০ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি দিদারুল আলম (নৌকা) পেয়েছেন ৩ হাজার ৭৩ ভোট।
জাফতনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আবদুল হালিম (নৌকা) ৫ ‍হাজার ৪১৫ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মো. লোকমান (আনারস) পেয়েছেন ৩৪৬ ভোট।
আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে হোসেন আলী তালুকদার (নৌকা) ১ হাজার ৭৯১ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি তাপস বড়‍ুয়া (আনারস) পেয়েছেন ১ হাজার ৪২ ভোট।
সুন্দরপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মো.শাহনেওয়াজ (নৌকা) ৩ হাজার ৫৭৬ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শহিদুল আজম (ধানের শীষ) পেয়েছেন ৩ হাজার ৩১৯ ভোট।
এর আগে বাগানবাজার ইউনিয়নে রুস্তম আলী, লেলাং ইউনিয়নে সরোয়ার হোসেন শাহীন, ধর্মপুর ইউনিয়নে মো.কাইয়ুম ও সমিতির হাট ইউনিয়নে হারুন অর রশিদ ইমন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
উচ্চ আদালতের মামলা কারনে গত ২১ এপ্রিল ভূজপুর ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়। একইভাবে সীমানা জটিলতার কারণে নানুপুর ইউনিয়নে নির্বাচন হয়নি।

Leave A Reply

Pinterest
Print