ফুলবাড়ীতে ভারি বৃষ্টিতে কৃষকের মুখে হাসি

0

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম:
অনাবৃষ্টি আর খরতাপে পোড়া কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বুধবারের ভারি বৃষ্টি কৃষকের মধ্যে স্বস্তি ফিরে দিয়েছে। কৃষকরা বৃষ্টিতে ভিজে রোপা আমন ক্ষেতে সার দিচ্ছেন। কেউ কেউ পাট জাগ দেওয়ার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। দীর্ঘ মেয়াদী খরা থেকে আপাততঃ রক্ষা পেয়ে স্বস্তির হাসি হাসছে কৃষক, হাসছে প্রকৃতি। উপজেলায় কৃষকরা বৃষ্টির অভাবে যারা ধানের চারা রোপণ করতে পারেননি তারা চারা লাগাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। বুধবার ভোর থেকে দিনের দুপুর পর্যন্ত ভারি বৃষ্টিতে চারা গাছ ও প্রকৃতি সতেজতা ফিরে পেয়েছে। কৃষকরাও হয়েছেন অনেক খুশি।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এবার ৬৪০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে। রোপা আমনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১১ হাজার ৬০০ হেক্টর জমির মধ্যে ১০ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে ধানের চারা রোপণ করা হয়েছে। উপজেলার সোহেল জানান, তার পাঁচ বিঘা রোপা আমন ক্ষেতে বৃষ্টি না হলে সেচ দেয়া লাগত কিন্তু বৃষ্টি তাকে সেচ দেওয়া ঝামেলা থেকে স্বস্তি দিয়েছে ।
চন্দ্রখানার আশরাফুল ইসলাম দুই বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছেন। এতদিন পাট কাটার বয়স হলেও বৃষ্টির অভাবে জলাশয়ে পানি না থাকায় পাট কাটতে পারেননি। পাট কেটে জাগও দিতে পারেননি। আশরাফুল জানান, বৃহস্পতিবার তিনি আরও পাট কাটবেন।
উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক জানান, উপজেলায় বাকি জমিতে বৃষ্টি হওয়ায় কৃষকরা রোপা আমন চারা লাগাতে পারবেন। বৃষ্টির খুব প্রয়োজন ছিল।

Leave A Reply