বাথরুমে বেশি স্ট্রোক হয় যে ৫ কারণে

0
বাথরুমে বেশি স্ট্রোক হয় যে ৫ কারণে

বাথরুমে বেশি স্ট্রোক হয় যে ৫ কারণে

হাজারো মানুষ প্রতিদিনই বেইন স্ট্রোকে মারা যাচ্ছে। আপনি পরিচিত মহলে অনেকের মুখে শুনে থাকবেন তার পরিবারের কেউ নয়তো আত্মীয়স্বজন কেউ ব্রেইন স্ট্রোকে মারা গেছেন। আপনি জানেন কি, কেন বাথরুমে বেশি ব্রেইন স্ট্রোক হয়।

বিভিন্ন কারণে বাথরুমে স্টোক হয়ে থাকে।তাই এক্ষেত্রে অবশ্যই বিষয়গুলো জানা প্রয়োজন। এছাড়া আমাদের সচেতনও থাকা প্রয়োজন।

স্ট্রোক কি? মস্তিষ্কের অভ্যন্তরে রক্ত সরবরাহে ব্যাঘাত ঘটার ফলে যে দ্রুত জটিলতার দেখা দেয় তাকে বলা হয় স্ট্রোক। স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়া মানেই জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে চলে যাওয়া। এর ফলে বেঁচে যাওয়া রোগী পঙ্গুও হয়ে যেতে পারে। তবে নিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন আপনাকে স্ট্রোকের ঝুঁকিমুক্ত রাখতে পারে।

কোষ্ঠকাঠিন্য

কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হওয়াটা কোনো অস্বাভাবিক বিষয় নয়। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা ভোগেন তারা টয়লেটে গিয়ে স্বাভাবিক বাথরুম না হওয়ায় শরীরের ওপর অতিরিক্ত প্রেসারের কারণে স্ট্রোক করে থাকেন। কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হলে নরম খবার ও প্রচুর পানি পান করতে হবে।

উচ্চ রক্তচাপ ও নিম্ন রক্তচাপ
উচ্চ রক্তচাপ ও নিম্ন রক্তচাপ দুটোই শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। কারণ যা আপনার স্বাভাবিক চলাচলে ব্যাঘাত ঘটাবে।যাদের উচ্চ রক্তচাপ ও নিম্ন রক্তচাপের সমস্যায় ভোগেন তারা বাথরুমে স্ট্রোক করেন। তাই রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে খাবার, ব্যায়াম ও ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া যেতে পারে।

ডায়াবেটিস

বহুমূত্র রোগ বা ডায়াবেটিস একটি হরমোনসংশ্লিষ্ট রোগ। দেহযন্ত্র অগ্ন্যাশয় যদি যথেষ্ট ইনসুলিন তৈরি করতে না পারে অথবা শরীর যদি উৎপন্ন ইনসুলিন ব্যবহারে ব্যর্থ হয়, তাহলে যে রোগ হয় তা হলো ‘ডায়াবেটিস’ বা ‘বহুমূত্র রোগ’। ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগী বাথরুমে বেশি স্ট্রোক করে থাকেন।

রক্তে উচ্চমাত্রার কোলেস্টেরল

রক্তে উচ্চমাত্রার কোলেস্টেরল থাকলে হতে পারে স্ট্রোক অন্যতম প্রধান কারণ। কোলেস্টেরল, যা চোখে দেখা যায় না বা অনুভবও করা যায় না অথচ প্রতি মুহূর্তে ধমনীতে জমা হতে থাকে ধীরে ধীরে, যা জীবনের জন্য ঝুঁকিকর। রক্তে উচ্চমাত্রার কোলেস্টেরল থকলে অনেক সময় বাথরুমে স্ট্রোক হয়ে থাকে।

অ্যালকোহল গ্রহণ

অতিমাত্রায় মদ বা নেশাজাতীয় যে কোনো পানীয় গ্রহণ করলে স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কারণ অতিরিক্ত পদপানে অনেক সময় শরীরের স্বাভাবিক চলাফেরা ব্যবহৃত হয় ও শরীরে অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হয়। ফলে হতে পারে স্ট্রোক।

ডা. এম ইয়াছিন আলী
চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালটেন্ট ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল

Leave A Reply

Pinterest
Print