গুম হওয়ার ২০ দিনেও মেলেনি ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার মিন্টু ব্যাপারীর সন্ধান

0

সদরপুর প্রতিনিধি, ফরিদপুর :  ফরিদপুরের সদরপুরে ইলেট্রিক ব্যবসায়ী মিন্টু ব্যপারীকে গুম করার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নিখোঁজ ব্যক্তির মা শিউলি বেগম বাদী হয়ে গত ৫ জুলাই ফরিদপুর মেজিস্ট্রেট আদালত মামলা দায়ের করেন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ জুন রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে সদরপুর উপজেলার আটরশি বাজার হতে নিজ দোকান বন্ধ করে নিজ বাড়ি নয়রশিতে আসেন। রাতে খাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়েন এবং ঐ রাত থেকেই মিন্টু বেপারী নিজ শয়ন কক্ষ হতে গায়েব হয়ে হয়ে যায়। এ সময় মিন্টু বেপারীর মা শিউলি বেগম তখন ঢাকায় অবস্থান করছিলেন। ঘটানার তিন দিন পর ঐ বাসার ভাড়াটিয়া হিসেবে থাকা মিন্টু বেপারীর চাচাত বোন কোহিনুর বেগম, কোহিনুর বেগমের ছেলে সোহেল এবং কোহিনুর বেগমের স্বামী আজাহার শেখ জানান মিন্টুর মাকে তার নিখোঁজের বিষয়টি জানান। ছেলের নিখোঁজের খবর পেয়ে মিন্টু বেপারীর মা সদরপুরের বাড়িতে আসেন এবং তার সন্তানের ব্যাপারে নিকট আত্মীয়-স্বজন সহ সকলের কাছে খোজ-খবর নেন।

পরে তিনি মিন্টুর চাচাত ভাই মৃত জলিল বেপারীর ছেলে রফিকুল বেপারী (৪৫), জাহিদুল বেপারী (৩০), শফিকুল বেপারী (৩৫), মাফিকুলসহ সাত জনকে দায়ী করে ফরিদপুর মেজিস্ট্রেট কোর্টে মামলা দায়ের করেন। পরে আদালত মামলাটির তদন্ত করার জন্য সদরপুর থানায় নির্দেশ দেয়। বর্তমানে মামলাটি সদরপুর থানার তদন্তাধীন রয়েছে।

নিখোঁজ মিন্টুর মা শিউলি বেগম জানান, ঘটনার তিনদিন পর বিবাদীগণ আমার ছেলে মিন্টু বেপারীর কাছে থাকা তার নিজ দোকানের চাবি দিয়ে দোকান খুলে। বিবাদীগণ আমার ছেলের কাছে থাকা দোকানের চাবি তারা কোথায় পেল।

তিনি আরও বলেন, আসামীগণ আমার একমাত্র ছেলেকে হত্যা করে জমি-জমা সহ আমার সমস্থ সম্পত্তি দখল করার জন্য তাকে হত্যা করে গুম করেছে।

সদরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং তদন্ত চলছে বলে জানায়।

Leave A Reply