ব্রহ্মপুত্রের দূর্গম চরবাসীর স্বপ্ন পুরণ

0

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: ব্রহ্মপুত্রের দূর্গম চরাঞ্চল ফুলুয়ারচরবাসীর দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন একটি ঈদগাহ মাঠ ও একটি কবরস্থানের। রাজিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান শফিউল আলমের ব্যক্তিগত অর্থে ঈদগাহ মাঠ ও জেলা পরিষদের অর্থে কবরস্থান হওয়ায় সে স্বপ্ন পূরণ হয়েছে চরবাসীর। তারা ওই দুটি স্থানে মাঠি ভরাট করে ঈদের নামাজ আদায় ও মরদেহ দাফনের উপযোগী করে দিয়েছেন।
গতকাল রবিবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদ দ্বারা বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চল চরফলুয়ারচর গ্রামে ঈদগাঁও মাঠ ও কবরস্থানের উদ্ধোধন করেন রাজিবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শফিউল আলম। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্থানীয় লোকজন তাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে বলে উল্লাস প্রকাশ করেন।
উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, রাজিবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শফিউল আলম, রৌমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল ইসলাম মিনু, জেলা পরিষদ সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাইদুল ইসলাম মিনু, রাজিবপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. আজিবর রহমান, বন্দবেড় ইউপি চেয়ারম্যান মো. কবির হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা প্রভাষক মো. শাহ্ জালাল প্রমূখ।
দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণের কথা উল্লেখ করে ওই চরের বাসিন্দা প্রভাষক জালাল উদ্দিন বলেন, কবরস্থান না থাকায় এই দূর্গম চরে মানুষ মারা গেলে নৌকাযোগে আশপাশের গ্রামগুলোতে নিয়ে দাফন করতে হত। ইচ্ছা থাকলেও অনেক সময় প্রিয়জনের কবরটি জিয়ারত করতেও পারি না। বর্ষা মওসুমে তো আরও সমস্যা। এছাড়াও ঈদগাহ মাঠ না থাকায় স্বজনদের নিয়ে একসাথে ঈদের নামাজ আদায় করা যে কি আনন্দের তা আমরা বুঝতাম না। এখন সে আনন্দ পাবো বলে আমরা অনেক খুশি। এছাড়াও শফিউল আলম ৮টি মসজিদে ১৬ হাজার টাকা দিয়েছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Leave A Reply

Pinterest
Print