মটরসাইকেলের ধাক্কায় ময়মনসিংহের জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হাসপাতালে

0

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এ্যাড.নুরুল ইসলাম রানা গনসংযোগকালে মটরসাইকেলের ধাক্কায় হাত পা ভেঙ্গে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিনি ১৯ ডিসেম্বার সকাল ১০.৩০ মিনিটে গফরগাঁও উপজেলা রসুলপুর ইউনিয়নে গনসংযোগে যাওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তিনি ময়মনসিংহ চুরখাই হাসপাতালের (সিবিএমসি) ৬নং ওয়ার্ডে ১৪ বেডে চিকিৎসাধীন আছেন। চেয়ারম্যান পদর্প্রাথী ( মটরসাইকেল প্রতীক) নুরুল ইসলাম রানা জানান, পরিকল্পিতভাবে অজ্ঞাতনামা দুইজন মটরসাইকেল আরোহি গফরগাঁও রসুলপুর নামক স্থানে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্য পিছন থেকে মটরসাইকেল দিয়ে ধাক্ক মেরে ফেলে দেয়। তিনি বলেন আমি পাগারে পরে গেলে ঘাতকরা দ্রুত মটরসাইকেল নিয়ে সটকে পরে। ঘটনা স্থল থেকে স্থানীয় লোকজন আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।
জননেত্রী সৈনিকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্র নেতা নুরুল ইসলাম রানা বলেন আমি চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চেয়েছিলাম পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। তিনি বলেন ভোটের মাঠে পরাজিত না করতে পারার সংশয়ে হত্যার উদ্দেশ্য ঘটনা ঘটিয়েছে। তিনি আওয়ামীলীগ প্রার্থীর আচরণ বিধি লঙ্গনের অভিযোগ তুলে বলেন,তিনি গাড়ি বহর নিয়ে অবাধে গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। কিন্তু আমরা তা করতে পারিনা। ৪/৫ টি মোটরসাইকেল নিয়ে বের হলেই অভিযোগ উঠে আচরণ বিধি লঙ্গন করার। তিনি আরও বলেন নির্বাচনে অংশ নেয়ার শুরু থেকেই আমার প্রতি বিভিন্নভাবে বাধাগ্রস্থ করার পায়তারা করছে। কিন্তু আমার ভোটের মাঠে আমার অবস্থান সুদৃঢ় ও সংগঠিত রয়েছে। আমার বিজয় সুনিশ্চিত।
এসময় কমিউনিটি বেইজ হাসপাতালের অর্থপেডিক ডিপাটম্যান্টের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান,রোগীর হাতে মারাত্বক আঘাতের কারনে অপারেশন লাগবে এবং পায়ের ভাঙ্গন জোড়া লাগতে ১ মাসের মত সময় লাগবে।

Leave A Reply

Pinterest
Print