মাহেলা অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি গটলো জয় দিয়ে

0

s-9
স্পোর্টস ডেস্ক:
কলোম্বয় মাহেলা জয়াবর্ধনের শেষ টেস্টে পাকিস্তানকে ১০৫ রানে হারিয়েছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। শেষ টেস্টের এই জয়ে ২-০তে সিরিজ জিতেছে মাহেলার লঙ্কা। এর আগে চতুর্থ দিন সকালে ৫০তম অর্ধশতকে পৌঁছানোর পর সাইদ আজমলের শিকারে পরিণত হন জয়াবর্ধনে। প্রথম ইনিংসেও এই অফস্পিনারই বিদায় করেছিলেন তাকে। শেষ টেস্ট ইনিংসে জয়াবর্ধনের ব্যাট থেকে আসে ৫৪ রান। তার ১৩৭ বলের ইনিংসে ছিল ৮টি চার। টেন্ডুলকার-দ্রাবিড় জুটির পর ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল জুটির নির্মাতা জয়াবর্ধনে ও সাঙ্গাকারা। এই দুজনে ১২০ ইনিংসে ১৯টি শতক আর ২৭টি অর্ধশতক রানের জুটি উপহার দিয়েছেন ক্রিকেট বিশ্বকে। জুটিতে তাদের অবদান ৬ হাজার ৫৫৪ রান। ভারতের টেন্ডুলকার ও দ্রাবিড় তৃতীয় উইকেটে ১৪৩ ইনিংসে ২০টি শতক আর ২৯টি অর্ধশতকের জুটির সাহায্যে করেন ৬ হাজার ৯২০ রান। শেষ টেস্টে সাঙ্গাকারার সঙ্গে নিজের শেষ ম্যাচেও আরেকটি শতরানের জুটি উপহার দিলেন জয়াবর্ধনে। তৃতীয় উইকেটে তাদের ১০৭ রানের জুটি ভাঙে সাঙ্গাকারার বিদায়ে। এই জুটি গড়ার পথেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের গর্ডন গ্রিনিজ ও ডেসমন্ড হেইন্সকে (৬ হাজার ৪৮২) পেছনে ফেলেন জয়াবর্ধনে-সাঙ্গাকারা। ২০০৬ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত দেশকে নেতৃত্ব দেন জয়াবর্ধনে। ২০১২ সালেও সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য নেতৃত্বে আসেন তিনি। সনাৎ জয়াসুরিয়ার সঙ্গে শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে সফল অধিনায়ক জয়াবর্ধনের অধীনে ৩৮ টেস্টে ১৮টিতে জেতে শ্রীলঙ্কা, ১২টিতে ড্র করে আর হারে ৮টিতে। জয়াসুরিয়ার পরিসংখ্যানও ঠিক তাই। চলতি বছরই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষে ক্রিকেটের এই সংস্করণকে বিদায় জানান জয়াবর্ধনে। তবে ২০১৫ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এখনো ওয়ানডে খেলবেন তিনি।


Leave A Reply

Pinterest
Print