মেহেরপুরে হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে আলোচনা সভা

0

নিজস্ব প্রতিনিধি: মেহেরপুরে ‘ধর্মের অপব্যবহার প্রগতির অন্তরায়’ শীর্ষক এক জনসচেতনতামূলক আলোচনা সভা করেছে মেহেরপুর জেলা হেযবুত তওহীদ। গতকাল বিকেলে জেলার গাংনী উপজেলা পরিষদ হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে ইসলামের প্রকৃত আদর্শ তুলে ধরে দেশের মানুষকে সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ করতে হেযবুত তওহীদের দেশব্যাপী কার্যক্রমের অংশ হিসেবে গতকালের এ সভা অনুষ্ঠিত হলো।
সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন হেযবুত তওহীদের এমাম হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক, গাংনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, গাংনী পৌরসভা মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের আহŸায়ক মো. আশরাফুল ইসলাম, গাংনী উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহŸায়ক মো. আ. সালাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুদ পারভেজ, পৌর যুবলীগ নেতা শহীদুল ইসলাম, গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসিফ ইকবাল অনিক, গাংনী ইমারত নির্মাণ শ্রমিক সমিতির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মেহেরপুর জেলা হেযবুত তওহীদের সভাপতি শাহরুল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক তার বক্তব্যে বলেন, আমি ওয়াজ করে অর্থ উপার্জন করি না, আমার কথা কোনো রাজনৈতিক বক্তব্যও নয়, আমি আল্লাহ-রসুলের কথা বলি। তিনি হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারকারীদের লক্ষ্য করে বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করতে সাবধান! সবাইকে এক পাল্লায় মাপবেন না। আমি মানুষ সাধারণ, কিন্তু আমার কথা সাধারণ কথা নয়। আমি আল্লাহর কথা বলি। আমার কথা আগে শুনুন, বুঝুন।
হেযবুত তওহীদের এমাম মুসলিম জাতির দুর্দশার চিত্র তুলে ধরে বলেন, পৃথিবীময় মুসলমানরা নির্যাতিত হচ্ছে। গণহত্যার শিকার হচ্ছে। তাদের দেশগুলো ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে। মুসলমান মেয়েরা লাঞ্ছিতা হচ্ছে, ধর্ষিতা হচ্ছে। বসনিয়ায় লক্ষ লক্ষ নারীকে ধর্ষণের পর নয় মাস আটকে রেখে সন্তান ভ‚মিষ্ঠ করতে বাধ্য করা হয়েছিল। মিয়ানমারে সম্প্রতি কী হয়েছে তা আপনারা সবাই জানেন। কেন মুসলমানদের এই দুর্গতি। কেন আমরা একটা ভ‚খÐও রক্ষা করতে পারি না। তিনি বলেন, এক আল্লাহ, এক রসুল, এক কিতাবের অনুসারী জাতি এখন হাজার হাজার ভাগে বিভক্ত। আজ আমাদের জাতির সামনে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কোনো রাস্তা নেই। ওহাবী, কওমী, সুন্নি, শিয়া, হানাফি, হাম্বলি, এই তরিকা ওই তরিকা হানাহানি, মারামারি করেই জাতি এই অবস্থায় এসে উপনীত হয়েছে। তিনি সকল ভেদাভেদ ভুলে জাতির সকলকে মানবতার কল্যাণে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহŸান জানান।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোর’আন থেকে তেলাওয়াত করা হয় এবং সবশেষে মোনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত করা হয়। অনুষ্ঠানটির সহযোগিতায় ও মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল- দৈনিক বজ্রশক্তি, জেটিভি অনলাইন ও বাংলাদেশেরপত্র.কম।

Leave A Reply

Pinterest
Print