ময়মনসিংহে চিকিৎসকের অবহেলায় মাতৃগর্ভে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ

0

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহ শহরের মেরি স্টোপস মেটারনেটি ক্লিনিকে চিকিৎসকের অবহেলায় মাতৃগর্ভে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার বিকেলে মাতৃগর্ভে শিশু মৃত্যুর অভিযোগে ক্লিনিকে ভিড় জমায় এবং চিকিৎসক হিরাকে অবরুদ্ধ করে রাখে রোগির স্বজনরা। পরে স্থানীয়রা চিকিৎসক হিরাকে উদ্ধার করে। প্রায় এক মাস পূর্বে ত্রিশাল পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন খানের পুত্রবধূ নাসিমা আক্তারকে ময়মনসিংহ শহরের পূরবী সিনেমা হলের সামনে মেরিস্টোপ মেটারনেটি ক্লিনিকের চিকিৎসক হিরাকে দেখানো হয়।
চলতি মাসের ৬ তারিখে চিকিৎসক হিরা রোগিকে দেখে ঔষধ ও নিয়মাবলী প্রেসক্রিপশন করে দেন। সেই সাথে কয়েকদিন পর পর তার সাথে দেখা করতে বলেন। এর মধ্যে রোগি অন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়ায় রোগির প্রতি ক্ষিপ্ত হন চিকিৎসক হিরা এবং রোগির অবস্থা না বুঝেই আজ শনিবার তাকে প্রসবের তারিখ নির্ধারণ করে দেন।
শনিবার সকালে রোগি আসলে তাকে পরীক্ষা করে তার ডেলিবাড়ির তারিখ অনেক আগেই শেষ হয়েগেছে বলে জানান ঐ চিকিৎসক। তার গর্ভে থাকা সন্তানও মারা গেছে বলে তিনি নিশ্চিত করেন। এ খবরে রোগির আত্মস্বজনদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। চিকিৎসকের অবহেলার অভিযোগ শনিবার তারা ক্লিনিকে গিয়ে চিকিৎসককে অবরুদ্ধ করেন।
মৃত শিশু প্রসব করা মা এখন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। মাতৃগর্ভে শিশু মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে চিকিৎসক হিরার সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমি রোগিকে আরো অনেক আগেই প্রসবের তারিখ দিয়েছিলাম কিন্তু তারা দেড়ি করাতে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। এরজন্য চিকিৎসক হিসেবে আমি কোনক্রমেই দায়ী নয়।
এদিকে সাংবাদিকরা এ ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে গেলে স্থানীয় মাহতাব সরকারের ছেলে রোমন নিজেকে শহরের অন্যতম ক্ষমতাধর ব্যক্তি দাবী চিকিৎসকের পক্ষ নিয়ে সাংবাদিক ও রোগির স্বজনদের সাথে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করে। রোগির স্বজনরা চিকিৎসক ও স্বঘোষিত ক্ষমতাধর ব্যক্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন।

Leave A Reply

Pinterest
Print