রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক ভবনে ঝুলছে তালা- তালার সাথে ঝুলছে হাজারো শিক্ষার্থীর জীবন

0

 

বেরোবি প্রতিনিধি,রংপুর:
রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী, শিক্ষক সমিতি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দাবি আদায়ের বহুমুখী আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় গতকাল সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচী পালন করে আন্দোলনরতরা এবং আজ সম্মিলিতভাবে মহাসমাবেশ করবে বলে জানা যায়। এছাড়াও আন্দোলন কর্মসূচীর ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার থেকে সকল প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে এবং ভবনে তালা ঝুলছে। বহুমুখী আন্দোলনে দীর্ঘ একমাস যাবৎ অচল বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ে আরো বেশী অচল অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা যায়। এদিকে এই চলমান সংকটের কোন সমাধান না আসায় সবচেয়ে বেশী ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে ভর্তিকৃত সাধারন শিক্ষার্থী সহ ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ভর্তিচ্ছুক নব্বই হাজার ৪ শত ২ জন ভর্তি পরীক্ষার্থী। দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রক্রিয়া প্রায় শেষ দিকে হলেও বর্তমান চলমান সংকটের কারনে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সুনির্দিষ্ট পূর্ণনির্ধারিত তারিখ এখনও নির্ধারন করতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ। ফলে অনিশ্চয়তা আর উদ্বিগ্নে সময় পার করছে ভর্তিচ্ছুক এই শিক্ষার্থীরা। ডি ইউনিটে ভর্তিচ্ছুক রতন নামের এক শিক্ষার্থী জানান, এই পর্যন্ত কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাইনি, শেষ ভরসা এই বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়। অথচ আজ পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার কোন সুনির্দিষ্ট তারিখ নির্ধারন করা হয় নি। কি হবে বুঝতে পারছি না। খুব চিন্তায় আছি।
জানা যায়, গত ৪,৫ও৬ই ডিসেম্বর ভর্তিপরীক্ষার নির্ধারিত তারিখ থাকলেও চলমান সংকটের কারনে ভর্তির আবেদনের সময়সীমা ১০ই নভেম্বর থেকে ২৫শে নভেম্বর বাড়িয়ে পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। ২৫ নভেম্বর রাত ১২ টা পর্যন্ত ৬ টি অনুষদের ২১ বিভাগে ১২২৫ টি আসনের বিপরীতে মোট ৯০ হাজার ৪ শত ২ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করেন। কিন্তু আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলেও বর্তমান শিক্ষক শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী, বহুমুখী আন্দোলন আর উপাচার্যের অনড় অবস্থানে আজ পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পূর্ণনির্ধারন করতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। চলতি মাসে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে কিনা তা নিয়েও সন্দেহ রয়েছে। কেননা, চলতি মাসে বর্তমান সমস্যা সমাধান না হওয়া, বিভিন্ন জাতীয় দিবস ও শীতকালীন অবকাশের ছুটি থাকায় ভর্তি পরীক্ষা নাও হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. একেএম নূর-উন-নবী জানান চলমান সঙ্কটের সমাধান না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। আশা করি খুব শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধান হবে। উল্লেখ্য যে, গত ২৭ অক্টোবর থেকে ৭ দফা দাবিতে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি আন্দোলন করে আসছে। এর সাথে যোগ হয়েছে ১৮ মাসের বেতন ভাতাদিসহ চাকুরী স্থায়ী করনের দাবিতে বেতন না পাওয়া ১৫২ জন কর্মকর্তা কর্মচারীর আন্দোলন এছাড়াও চলমান সঙ্কট নিরসন, বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ, শিক্ষক নিয়োগ, সেমিনার , বই সরবরাহ, হলচালু সহ বিভিন্ন দাবিতে যুক্ত হয়েছে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

Leave A Reply

Pinterest
Print