লক্ষীপুরে সাজানো মামলায় দুই সাংবাদিক কারাগারে, প্রতিবাদে মানববন্ধন

0

রুবেল হোসেন, লক্ষীপুর: সাজানো মামলায় লক্ষীপুরের তরুন দুই সাংবাদিক রাজিব হোসেন রাজু ও সোহেল রানাকে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সাংবাদিক সমাবেশ ও মানববন্ধন করা হয়েছে। শনিবার (০১ এপ্রিল) দুপুর ১২ টার দিকে লক্ষীপুর প্রেসক্লাবের সামনে স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধনের আয়োজন করেন।
সাজানো মামলার শিকার ভুক্তভোগী সাংবাদিক রাজিব হোসেন রাজু লক্ষীপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক মুক্ত বাঙ্গালী পত্রিকার স্টাফ রির্পোটার ও সোহেল রানা সপ্তাহিক নতুনপথ পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক।
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম, মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, আজিজুর রহমান আযম, আক্তার আলম, মীর ফরহাদ হোসেন সুমন, কাজী মোরশেদ আলম ও মানবাধিকার কর্মী হিযবুল বাহার রানা প্রমুখ।
এসময় বক্তারা বলেন, তরুন দুই সাংবাদিককে জড়িয়ে মিথ্যা ও সাজানো মামলা দায়ের করিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। যা অত্যন্ত দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। আমরা এ ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ ও মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাই। এসময় স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, বুধবার (২৯ মার্চ) রাত ৮ টার দিকে সদর উপজেলার ভাঙ্গাখাঁ ইউনিয়নের মিরকপুর গ্রামের চৌকিদার বাড়িতে প্রেম ঘটিত ঘটনার জেরে লিটন নামে এক যুবককে মারধর করে আটক রাখার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে সংবাদ সংগ্রহ করতে যায় সাংবাদিক রাজু ও সোহেল। ওই সময় ঘটনাস্থলে ওই যুবককে একটি খেলনা পিস্তল, ছুরি ও চাইনিজ কুড়াল দিয়ে ফাঁসানোর পরিকল্পনা চলছিল। ঘটনাস্থলে বিষয়টি দেখতে পেয়ে রাজু ও সোহেল ওই ঘটনার ভিডিও চিত্র ধারন করতে গেলে ওই বাড়ির লোকজন সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে যুবকসহ সাংবাদিকদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাতেই মিথ্যা গল্প সাজিয়ে দুই সাংবাদিকসহ তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এতে অপহরণে ব্যর্থ হয়ে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবির কাল্পনিক অভিযোগ আনা হয়। ওই মামলায় বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) বিকালে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। অভিযুক্ত অপর যুবক আবু ছায়েদ লিটন পার্শ্ববর্তী চাঁদপুর জেলার হাজিগঞ্জ থানার দেশগাঁও গ্রামের মৃত আবুল কালামের ছেলে। লিটন সম্প্রতি ওই বাড়িতে প্রেম করে বিয়ে করেছে বলে দাবি করছে।

Leave A Reply

Pinterest
Print