শেরপুরে ব্যালট ছিনতাই, গুলি, আহত অর্ধশতাধিক; এক কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

0

Sherpur UP Elaction Picশেরপুর প্রতিনিধি : সহিংসতা, ব্যালট বাক্স ছিনতাই, গুলি আর একটি কেন্দ্র স্থগিতের মধ্য দিয়ে শেরপুরে তৃতীয় দফায় ২৩ এপ্রিল শনিবার সদর উপজেলার ৬ ইউনিয়নের নির্বাচন শেষ হয়েছে। বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দী চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত: অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে। এসব সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ ৭০ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
আহতদের মধ্যে কয়েকজন বুলেটবিদ্ধ হয়েছেন। এদের মধ্যে আক্রাম হোসেন (৩৮), আঙ্গুর মিয়া (২৮), আব্দুর রশিদ (৭০) ও আজিমদ্দিন (৫৫) নামে চারজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। বিকেল শেরপুর জেলা হাসপাতালে ২১ জন ভর্তি রয়েছেন এবং আরও ৯ জন চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. আমিরুল ইসলাম জানিয়েছেন ।
এদিকে, কামারের চর ইউনিয়নের ৭ নং চর কেন্দ্রে বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে দূর্বত্তরা চারটি ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে নেওয়ায় ওই কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে বলে জেলা প্রশাসক ডা. এ এম পারভেজ রহিম জানান।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, চরমুচারিয়া ইউনিয়নের লতারিয়া, চরপক্ষিমারী ইউনিয়নের কুলুরচর, বেপারিপাড়া, চরশেরপুর ইউনিয়নের হেরুয়া-বালুরঘাট, চরশেরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কামারের চর ইউনিয়নের সাহাব্দীরচর উত্তর, ৭ নং চর, নয়াপাড়া এবং বলায়েরচর ইউনিয়নের পাইকুরা কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থী এবং প্রতিদ্বন্দী মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।
লছমনপুর ইউনিয়নের ঘিনাপাড়া এবতেদায়ী মাদ্রাসা কেন্দ্রে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টাকালে ভ্রাম্যমান আদালত তিনজনকে ১৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সেলিম মিয়া এ জরিমানা আদায়েরসত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জালভোট দেয়ার অভিযোগে তিনজনকে ১৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়ছে এবং অনুমোদনহীনভাবে মোটর সাইকেল নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশের দায়ে আরও একজনকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রহমান নির্বাচন চলাকালে নির্বাচনী এলাকায় অনুমোদনহীনভাবে মোটর সাইকেল চালনার অভিযোগে ১৪ টি মামলায় ৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।
অপরদিকে, ভোট গ্রহনের আগে শুক্রবার মধ্যরাতে চরপক্ষীমারি ইউনিয়নের সাতপাকিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে আশপাশের দু’টি বাড়ীতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এসময় ৭ জন আহত হয় এবং একটি ঘর আগুনে পুড়ে যায় ও আরেকটি ঘর ইটপাটকেল ও দা দিয়ে কুপিয়ে ভাংচুর করা হয়। আওয়ামীলীগ প্রার্থীর সমর্থকরা এ হামলা চালায় বলে ক্ষতিগ্রস্তরা অভিযোগ করেছেন। অপরদিকে চরশেরপুর ইউনিয়নের চরশেরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে দ্ইু মেম্বার প্রার্থীর মধ্যে এক সংঘর্ষে ৭ জন আহত হয়।

Leave A Reply

Pinterest
Print