শ্রীপুরে মেলার নামে উলঙ্গ নৃত্য, জুয়া ও মাদকের ছড়াছড়ি বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন-স্মারকলিপি প্রদান

0

Melaশ্রীপুর প্রতিনিধি, গাজীপুর: শ্রীপুরে প্রশাসনের ছাত্র ছায়ায় দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্পটে মেলার নামে চলছে অশ্লীল নৃত্য জুয়া, হাউজি, লাকী কুপন ড্র। মেলা এলাকায় বসেছে মাদকের জমজমাট ব্যবসা। ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে মেলার কারণে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশংকা করছে প্রার্থীরা। আজ বুধবার মেলার নামে সকল অনৈতিক কর্মকান্ড বন্ধের দাবীতে তেলিহাটি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন সরকার ও তেলিহাটি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুস ছাত্তার আবুলের নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদ চত্বরে মানববন্ধন, সমাবেশ ও নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছে এলাকাবাসী। জুয়ায় সর্বশান্ত হয়ে মেলা স্থানের আশপাশের এলাকায় বেড়েছে চুরি, ছিনতাই, মাদকের ব্যবহার আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে ম্যানেজ করে মাসের পর মাস চলছে এসব অপকর্ম। বিভিন্ন স্পটে মেলা বন্ধের দাবীতে জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা ও এলাকাবাসী মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন সহ বিভিন্ন কর্মসূচী দিয়েও বন্ধ করতে পারছেনা এসব মেলা নামক অনৈতিক কর্মকান্ড। মাঝে মাঝে প্রশাসন মেলাস্থলে হামলা দিলেও কয়েক ঘন্টার ব্যাবধানে পূনরায় শুরু হয়ে যায় অদৃশ্য শক্তির ইশারায়। শ্রীপুরে গত কয়েক মাস ধরে মাস্টার বাড়ী নয়নপুর এমসি বাজার এলাকায় চলছে এসব মেলা ব্যবসা। ইতিমধ্যে ২নং সিএন্ডবি এলাকার মেলা বন্ধ হলেও নতুন নতুন স্থানে চালুর পায়তারা শুরু করেছে মেলাবাজরা । সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, শ্রীপুরের এমসি বাজারের ১ কি:মি: পূর্ব পার্শ্বে শিশু পল্লী সড়ক সংলগ্ন সাফকাত মাঠে স্থানীয় প্রভাবশালী সাবেক মেম্বার সামসুদ্দিন, আব্দুস সাহিদ এর নেতৃত্বে গত ১ সপ্তাহ ধরে চলছে মেলা নামক অনৈতিক ব্যবসা। মেলায় প্রায় ৩০টি স্টলে ওয়ান টেন, ডাব্বো, জামাই বউ, চরকীসহ নানা স্টাইলের জুয়া। শিশু, যুবক, বৃদ্ধ সহ আশপাশের কারখানার শ্রমিকরা ঝুকে পড়েছে জুয়া খেলায়। কেউ কেউ সর্বশান্ত হয়ে আশপাশের পথচারীদের কাছ থেকে মোবাইল সহ অর্থ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটাচ্ছে। মেলার দক্ষিন দিকে বিশাল আকারের মঞ্চ করে চলছে লাকী কূপন ড্র। সরকারের অনুমতি ছাড়া বিশ টাকার টিকিট বিক্রি করে লটারী দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে মেলাবাজরা। মেলার মাঝখানে হাউজি আর যাত্রা মঞ্চ। হাউজি খেলার ফাঁকে ফাঁকে রাতভর চলে উলঙ্গ নৃত্য। ভিতরেই চলেছে মদ, গাজার অবাদ ব্যবসা। মেলার আয়োজক সামসুদ্দিন মেম্বারের সাথে কথা বলে জানা যায়, স্থানীয় প্রভাবশালী ও প্রশাসনকে ম্যানেজ করতে প্রতি রাতে তার ৪ লক্ষ টাকা গুনতে হয়। একই রকম ঘটনা পরিলক্ষিত হয় গড়গড়িয়া মাস্টার বাড়ী এলাকায়। তেলিহাটি ইউপি চেয়ারম্যান আ: বাতেন সরকার জানান, তেলিহাটিতে ইতিপূর্বেও মেলা চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। জনগণকে সাথে নিয়ে তিনি আন্দোলনের মাধ্যমে তাদেরকে বিতারিত করেছিলেন। সামনে ইউপি নির্বাচন এসব অনৈতিক কর্মকান্ড এখনই বন্ধ করতে না পারলে নির্বাচনে সংঘর্ষের আশংকা করছেন তিনি। বুধবার মেলার নামে সকল অপকর্ম বন্ধের দাবীতে শ্রীপুর উপজেলা প্রশাসনের সামনে হাজার হাজার মুসল্লি সহ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। মানববন্ধন শেষে আ: বাতেন সরকারের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন তেলিহাটি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আ: ছাত্তার আবুল, আমির আলী মোড়ল, ওমর ফারুক, নাছির উদ্দিন, শফিক মোড়ল প্রমুখ। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। পৌর মেয়র আনিছুর রহমান জানায় আন্দোলনের মাধ্যমে ২নং সিএন্ডবি এলাকা থেকে মেলা বাজদের হটিয়ে দিলেও পৌর এলাকার মাস্টার বাড়ী নামক স্থানে সম্প্রতি মেলার নামে অনৈতিক কর্মকান্ড চলছে। তিনি মেলা বন্ধ না হলে পূনরায় কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন। শ্রীপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ মো: আসাদুজ্জামান জানান, শ্রীপুর থানা এলাকায় কোন অবস্থাতেই মেলা চলতে দিব না।

Leave A Reply