সংখ্যা গরিষ্ঠতা অর্জন করে সরকার গঠন করতে চায় জাপা

0

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ শীর্ষ নেতারা বলেছেন, রংপুরে বিপুল ভোটে বিজয়ের পর জাতীয় পার্টির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা জেগে উঠেছে। ৩০০ আসনের মধ্যে সংখ্যা গরিষ্ঠতা অর্জন করাই হলো আমাদের টার্গেট। আমরা যাতে নির্বিঘ্নে সরকার গঠন করতে পারি।

বৃহস্পতিবার পার্টির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা এ প্রতিদেককে এসব কথা বলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, রংপুরে বিপুল ভোটে বিজয়ের পর কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ সৃষ্টি হয়েছে। পার্টির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা জেগে উঠেছে ও সবাই এখন ঐক্যবদ্ধ। আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি একটি ফ্যাক্টর হিসেবে দাঁড়িয়েছে। জাতীয় পার্টিকে সবাই সঙ্গে নিতে চাচ্ছে। তবে নেতাকর্মীদের ওপর নির্ভর করছে তারা কার সঙ্গে জোট বাঁধবে। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি সংগঠিত হচ্ছে। ৩০০ আসনে আমাদের প্রার্থী আছে।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি বলেন, এবার জাতীয় পার্টির পালা। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের মধ্যে সংখ্যা গরিষ্ঠতা অর্জন করাই হলো আমাদের টার্গেট। আমরা যাতে নির্বিঘ্নে সরকার গঠন করতে পারি। জনগণের পরীক্ষিত নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে দেশে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। জনগণের কাছে আমাদেরকে এগুলো তুলে ধরতে হবে। তিনি বলেন, বিএনপি ও আওয়ামী লীগের গত ২৬ বছরের শাসনামলের দেশে তেমন কোনো উন্নয়নমূলক কাজ কারো চোখে পড়েনি।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি বলেছেন, রংপুর সিটি কর্পোরেশনে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়ায় জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছে। এই নির্বাচনের ধারাবাহিকতায় আমরা একাদশ জাতীয় নির্বাচনেও ভাল করবো। জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন জোট ৩০০ আসনে প্রার্থী দিলেও আমাদের টার্গেট থাকবে অন্তত ১০০ থেকে ১২০ আসনে জয়ী হওয়া।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম ফয়সাল চিশতী বলেন, রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টির ফল যেভাবে ভাল হয়েছে, তেমনি আগামী জাতীয় নির্বাচনেও ভাল হবে। তবে, আমাদের জোটের কমপক্ষে ১০০ আসনে জয়ী হওয়ার টার্গেট থাকবে।

Leave A Reply

Pinterest
Print