সাঁথিয়া পৌর নির্বাচন: জয় ধরে রাখতে তৎপর আ’লীগ; ইমেজ উদ্ধার বিএনপির চ্যালেঞ্জ

0

776798345লুৎফর রহমান ,পাবনা: আসন্ন সাঁথিয়া পৌরসভা নির্বাচন যেন উৎসবমূখর হয়ে উঠেছে। পৌর সদরসহ পৌরসভার ওয়ার্ডগুলোর বিভিন্ন অলিতে গলিতে পোষ্টারে ছেয়ে গেছে। দীর্ঘ রাত অব্দি চলে চায়ের দোকানে আড্ডা। শীতের চাদর মুড়ি দিয়ে বসে থাকে এলাকার জনসাধারন। এরই মাঝে জমে ওঠে নির্বাচনী আলোচনা কে জিতবে নৌকা না ধানের শীষ !
সাঁথিয়া পৌর সভায় ধানে শীষের টিকিট পেয়েছেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ। তিনি বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গিয়ে উঠান বৈঠকের মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় নির্দেশে জেলা ও উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ মাঠে নেমে পড়েছেন ধানের শীষের পক্ষে।

অন্যদিকে নৌকার টিকিট পেয়েও নিজেকে সর্বদলীয় প্রার্থী হিসাবে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন আ’লীগ নেতা ও বর্তমান মেয়র মিরাজুল ইসলাম প্রাং। দুই দুইবার আ’লীগ থেকে টিকিট নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হন তিনি। তাই তিনি জয় ধরে রাখতে তৎপর হয়ে ওঠেছেন। মহান বিজয় দিবসকে সামনে রেখে বিশাল শো-ডাউন দেন নৌকা প্রতিকের মেয়র প্রার্থী। অপর দিকে আ’লীগের গলার কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক আ’লীগ নেতা নফিজ উদ্দিন। জানা গেছে, তিনি দলের কোন কমান্ড না মেনেই বহাল তবিয়্যাতে সিংহের মত শক্তিশালী হয়ে নির্বাচনে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমাদের লোকজনকে ভোট চাইতে বাধা দিচ্ছে নৌকা প্রতিকের লোকজন। বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি ও লোকজনকে হুমকি দিচ্ছে। এমনকি আমাকে পযর্ন্ত ছাড় দেয়নী তারা।এ ব্যাপরে থানায় অভিযোগও দায়ের করেছি। এ অভিযোগ অস্বীকার করে বর্তমান মেয়র মিরাজুল ইসলাম বলেন, এসব মিথ্যা ওনি (নফিজ উদ্দিন) পরাজিত হবে ভেবেই এসব মিথ্যা কথা বলে বেড়াচ্ছে।

এদিকে গতবারের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক পৌর ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বর্তমানে পৌর বিএনপির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেনী । যার প্রেক্ষিতে গত ১৪-১২-১৫ইং তাং এ জেলা বিএনপি এক প্রেস ব্রিফিং-এর মাধ্যমে তাকে দল থেকে বহিস্কার করেন। তবে দলের নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায়,বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী সাইফুল ইসলাম বহিস্কার হওয়ার পর থেকেই প্রচার প্রচারণা বন্ধ রেখেছেন এবং দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবেন বলে সম্মতিও জ্ঞাপন করেছেন। অন্যদিকে সতন্ত্র প্রার্থী আশিক ইকবাল রাসেল নারিকেল গাছ প্রতিক নিয়ে নির্বাচন প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। এ ছাড়া জামায়াতের বকুল হোসেন নামে একজন মোবাইল প্রতিক নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

Leave A Reply

Pinterest
Print