সাতক্ষীরায় সরকারি পুকুর ব্যক্তির নামে রেকর্ড !

0

তালা

রফিকুল ইসলাম, সাতক্ষীরা :

সাতক্ষীরার তালা উপজেলা সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মো: সামছুর রহমানের বিরুদ্ধে উৎকোচের বিনিময়ে সরকারী পুকুর ভূমিদস্যুদের পক্ষে রায় দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সরেজমিনে না গিয়ে এবং অফিস না করে নিজ বাড়িতে বসে উক্ত রায় লিখে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছে ভূক্তভোগিরা।

 

এদিকে, তালা উপজেলা  নির্বাহী কর্মকর্তা ও দায়িত্বপ্রাপ্ত এসিল্যান্ড মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেছেন, সরকারী পুকুর কিভাবে উক্ত সেটেলমেন্ট অফিসার ব্যক্তি মালিকানায় রায় প্রদান করেছন সেটি খতিয়ে দেখা হবে। প্রয়োজনে উক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিতভাবে জানানো হবে।

 

জানা গেছে, তালা উপজেলার জাতপুর মৌজার সিএস ১-৫ নং খতিয়ানের ৩২০ দাগের .৩৮ শতাংশ পুকুরটি ছিল জমিদারদের। যা হাল এসএ ২ নং খতিয়ানে ৩২০ দাগের .৩৮ শতক জমিসহ আরো ৬.৪৯ শতক জমি বি. এস.এ এ্যান্ড টি. এক্ট এর ২৩(১) ধারায় সরকার পক্ষ খাস খাতয়ানভূক্ত করেন। উক্ত খাস জমি জাতপুর গ্রামের মৃতঃ পরবেশ বিশ্বাসের পুত্র আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাস দিং চলমান জরিপে ডিপি ৬২ ও ১১১ নং ডিপি খতিয়ানে নিজেদের নামে রেকর্ডভূক্ত করায়। এ ঘটনায় সরকরের পক্ষে তালা সদর ইউনিয়নের তহশীলদার বাদী হয়ে ৩০ ধারা ও পরে ৩১ ধারায় একটি আপিল কেস দায়ের করেন (যার নং- ২২০৯৬/১৪)।

 

সম্প্রতি উক্ত আপিল কেসের শুনানী হয় এবং সকল কাগজপত্র সঠিকভাবে দেখানোর পরও উক্ত পুকুরের জমি সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মোঃ সামছুর রহমান লক্ষাধিক টাকা উৎকোচের বিনিময়ে ভূমিদস্যু রাজ্জাক দিং এর পক্ষে রায় প্রদান করেছেন বলে জানা গেছে। বিতর্কিত ঐ অফিসারের পোষ্টিং লড়াইল জেলার লোহাগড়ায় হলেও তিনি সম্প্রতি লাখ লাখ টাকার মিশন নিয়ে প্রেষণে তালা অফিসে কাজ করতে আসেন। এছাড়া উক্ত সেটেলমেন্ট অফিসার আরো ২৭ টি আপিল কেসের রায় একই পরিবারের আমজাদ বিশ্বাস গং দের নামে রেকর্ড প্রদানের পায়তারা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মোঃ সামছুর রহমান জানান, কাগজপত্র পর্যবেক্ষন করে মনে হয়েছে ওই জমি আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাস গং-দের। বিধায় সরকার পক্ষের আপীল কারিজ করে আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাস গং-দের নামে রেকর্ড বহাল করা হয়েছে । এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, একদিকে সরকার তার কাছ থেকে ওই জমির ভূমিউন্নয়ন কর নিচ্ছে, অপর দিকে ওই জমি সরকারের বলে দাবি করছে।

বাংলাদেশের পত্র. কম /এডিএমএম

Leave A Reply

Pinterest
Print