সোনাইমুড়ীতে মৎস্য চাষীর প্রজেক্টে বিষ, দশ লক্ষ টাকার ক্ষতি

0

SAM_1567নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার চাষীর হাট ইউ পির সাহার পাড় উত্তর পাড়ায় মৎস্য চাষী মো: নূরে আলমের মৎস্য প্রজেক্টে বিষ ঢেলে দিয়েছে দুবৃর্ত্তরা বলে স্থানীয় লোকজন জানান। নূরে আলম বলেন গত মঙ্গলবার গভীর রাতে দুবৃর্ত্তরা আমার মৎস্য প্রজেক্টে বিষ ঢেলে দেয়। এতে আমার আনুমানিক দশ লক্ষ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়। আমি সকাল বেলা প্রজেক্টে মাছের খাদ্য দিতে গেলে দেখতে পাই মাছ গুলো সব মরে পানিতে ভাসছে। পরে আমি আমার প্রতিবেশীদের ডেকে সবাইকে দেখালাম আমার প্রজেক্টে গতকাল রাতে দুবৃর্ত্তরা বিষ দিয়েছে। প্রতিবেশীরা আমাকে মেম্বার চেয়ারম্যান ও থানা প্রশাসনকে জানানোন জন্য পরামর্শ ও আমাকে শান্তনা দেন। আমি মেম্বার মোবারক উল্লাকে মৎস্য প্রজেক্টে এনে দেখাই এবং চেয়ারম্যান হানিফ মোল্লাকে এ ঘটনাটি ফোনে জানাই। ইউ পি আওয়ামীলীগের সভাপতি ফখরউদ্দিনকে ও ঘটনাটি জানাই এবং থানা প্রশাসনকে জানালে তারা আমাকে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার জন্য বলেন। এই ব্যাপারে ঘটনা স্বাক্ষী হারুন সওদাগর, আবদুল হালিম পিতা: মৃত: আবদুস সোবাহান, এনায়েত উল্লাহ পিতা: ছায়েদুল হক সহ উপস্থিত আরোও অনেকে বলেন নূরে আলম সফল মৎস্য চাষী হওয়ার কারনে দুবৃর্ত্তরা শত্রæতা মূলক তার আর্থিক ক্ষতির জন্য মৎস্য প্রজেক্টে বিষ ঢেলে দেয়। পূর্বে ও তারা নূরে আলমের গাছপালা ও ফলসহ বিভিন্ন সম্পদ লুটপাট করে। তারা আরো জানান নূরে আলমের ঘরের নির্মাণ সামগ্রী রড সিমেন্টসহ অন্যান্য জিনিসপত্র পূর্বে ও লুটপাট হয়। নূরে আলম পূর্বে বিদেশে থাকা কালে শত্রæরা তার বিভিন্ন সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি করলে স্থানীয় মেম্বার চেয়ারম্যান সালিশ করে সহযোগিতা করেন ও আইনের আশ্রয় নিতে পরামর্শ দেন। তিনি আরও জানান পূর্বে আমার কিছু জায়গা শত্রæরা দখল করে এক বছর ভোগ দখল করে পরে মেম্বার চেয়ারম্যানগন সালিশ করে আমার জায়গা গুলো দখলম্ক্তু করে দেন। এ ব্যাপারে নূরে আলম কোর্টে মামলা করবেন বলে জানান। তার পরিবার ও এলাকাবাসীর দাবী থানা প্রশাসন যেন ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে অপরাধীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেন।

Leave A Reply