হালুয়াঘাটে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন; অবৈধ গর্ভপাত

0

হালুয়াঘাট(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার ধারা ইউনিয়নের পূর্বধারা গ্রামে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন ও অবৈধভাবে গর্ভপাত এর অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পূর্বধারা গ্রামের মো. রফিকুল ইসলামের কন্যা সুফিয়া আক্তার (২২) এর সহিত বিগত ৭ মাস পূর্ব হতে একই এলাকার উসমান আলীর পুত্র মো. শামছুল হক বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারিরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। অবৈধ মেলামেশার ফলে মেয়েটি ৬ মাসের অন্তঃস্বত্তা হয়ে পড়ে। হঠাৎ মেয়েটির প্রচন্ড মাথা ব্যাথায় অস্থিরতা প্রকাশ করলে তার লম্পট প্রেমিক শামছুল হক ২টি টেবলেট দেয়। টেবলেটটি সেবন করার পর গত সোমবার সকালে মেয়েটির গর্ভপাত ঘটে এবং ৬ মাসের নবজাতক কন্যা শিশু মৃত প্রসব করে।
এ বিষয়ে মেয়েটি সাংবাদিকদের জানায়, শামছুল হক দীর্ঘদিন যাবত তার পিতার হাঁসের খামারে প্রতিনিয়ত শারিরিকভাবে মেলামেশা করে। তার প্রেমিকের দেয়া ঔষধ খেয়ে তার গর্ভপাত ঘটেছে বলে জানায়। এ বিষয়ে আজ মঙ্গলবার অসুস্থ সুফিয়ার মাতা জেলেখা খাতুন বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে হালুয়াঘাট থানায় শামছুল হককে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।
হালুয়াঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল ইসলাম মিঞা জানান, ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বিষয়টি তদন্তনাধীন আছে বলে জানান তিনি।

Leave A Reply

Pinterest
Print