ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে হেযবুত তওহীদের সংবাদ সম্মেলন

0

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে হেযবুত তওহীদ আন্দোলনের সদস্যদের উপর হামলা, অফিস ও বাড়ি-ঘর ভাঙচুরের হুমকি প্রদানের তিব্র প্রতিবাদ ও প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করে সংবাদ সম্মেলন করেছে ময়মনসিংহ জেলা হেযবুত তওহীদ। মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় হেযবুত তওহীদের ময়মনসিংহ জেলা কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা অভিযোগ করেন, গত ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে জেলার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার অন্তর্গত রাজিবপুর ইউনিয়নের ভাটিচর নওপাড়া গ্রামে লাটিয়ামারী বাজারে হেযবুত তওহীদ অন্দোলনের সদস্যদের বাড়ি-ঘর ও অফিসে হামলা করে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ এবং হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলা ও এলাকাছাড়া করার হুমকি প্রদান করে স্থানীয় একটি উগ্রপন্থী ধর্মব্যবসায়ী শ্রেণি। এসময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ময়মনসিংহ জেলা হেযবুত তওহীদের সভাপতি মো. রহমত উল্লাহ।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, হেযবুত তওহীদ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠালগ্ন অর্থাৎ ১৯৯৫ সাল থেকেই এক শ্রেণির ধর্মব্যবসায়ী হেযবুত তওহীদের বিরোধিতায় অবতীর্ণ হয়েছে। তারা ওয়াজে, খোতবায়, হাটে, বাজারে সর্বত্র অপপ্রচার চালিয়ে মানুষকে আন্দোলনের সদস্যদের উপর হামলা করতে উস্কানি দিয়ে আসছে। বিভিন্ন সময়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় এই শ্রেণিটির উস্কানিতে প্রভাবিত হয়ে একটি উগ্রগোষ্ঠী আমাদের উপর একাধিকবার হামলাও করেছে। এমনকি এ ধরনের হামলার ঘটনায় আমাদের বেশ কয়েকজন সদস্য নিহতও হয়েছেন।” মো. রহমত উল্লাহ আরো বলেন, “ঈশ্বরগঞ্জেও সেই ধর্মব্যবসায়ী গোষ্ঠীটি একই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটাতে চাচ্ছে মর্মে বেশ কিছুদিন যাবৎ আমরা লক্ষ্য করছি। তারা হেযবুত তওহীদের সদস্যদের পথরোধ করে ও সরাসরি তাদের প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করে আসছে। গত ৩০ সেপ্টেম্বর লাটিয়ামারী বাজারস্থ মসজিদ হতে এশার আজানের পর স্থানীয় কয়েকজন ধর্মব্যবসায়ী ও তাদের অনুসারীরা মসজিদ থেকে দলে বলে বের হয়ে “এক একটা হেযবুত তওহীদ ধর, ধইরা ধইরা জবাই কর” বলে শ্লোগান দিতে দিতে আমাদের কার্যালয়ে হামলার চেষ্টা চালায়। স্থানীয়দের সহযোগিতায় আমাদের সদস্যরা সেই হামলা প্রতিরোধ করে। এহেন কর্মকা-ের দরুণ ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় হেযবুত তওহীদের সকল সদস্য-সদস্যাগণ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এমতাবস্থায়, ঈশ্বরগঞ্জ থানা এলাকায় বসবাসরত হেযবুত তওহীদের সকল সদস্য-সদস্যাদের জান-মালের নিরাপত্তা অনিশ্চিত হওয়ায় যথোপযুক্ত আইনগত সহায়তা প্রাপ্তির প্রত্যাশায় থানায় সাধারণ ডায়েরী দাখিল করতে গেলে থানা কর্তৃপক্ষ জিডি না নিয়ে ‘বিষয় দেখছি’ বলে মৌখিক আশ্বাস প্রদান করেন। কিন্তু পরবর্তীতে থানা-প্রশাসনের যথাযথ সহযোগিতা না পাওয়ায় উগ্র গোষ্ঠীটি আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে এবং স্থানীয় হেযবুত তওহীদ সদস্যরা চরম আতঙ্কের মধ্য দিয়ে দিন যাপন করছে।
এসময় তিনি বলেন, উপরোক্ত বিষয়টি সার্বিক বিবেচনায় নিয়ে ঐ এলাকায় নিরপরাধ হেযবুত তওহীদের সদস্যগণসহ সর্বস্তরের জনগণ যাতে তাদের নিজ নিজ বসত ভিটায় নির্বিঘেœ বসবাস করতে পারে সেই লক্ষ্যে কাজ করার জন্য আমরা গণমাধ্যমের নিকট উপস্থাপন করলাম। তিনি আরো বলেন, ধর্মব্যবসায়ীরা বারবার হেযবুত তওহীদকে লক্ষ্যবস্তু বানানোর একমাত্র কারণ, ধর্মের দোহাই দিয়ে অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিল, সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদসহ ধর্মের নামে প্রচলিত প্রতিটি অন্যায়ের বিরুদ্ধে এই আন্দোলনের সদস্যরা সোচ্চার। তারা বিশ্বাস করেন, যারা ধর্মকে কায়েমী স্বার্থের হাতিয়ার বানিয়ে নিয়েছে তারা ধর্মকেই অবমাননা করছে। হেযবুত তওহীদ কোরআন ও হাদিসের ভিত্তিতে ধর্মব্যবসাকে ইসলামের দৃষ্টিতে অবৈধ বলে প্রমাণ করেছে এবং সাধারণ মানুষের সামনে তা প্রকাশ করে আসছে বলেই স্বার্থান্বেষী শ্রেণিটি হেযবুত তওহীদের বিরোধিতায় অবতীর্ণ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মো. রহমত উল্লাহ।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল হক বাপ্পা। উপস্থিত ছিলেন চ্যালেন নাইন এর প্রতিনিধি রিপন গোয়ালা, এসএ টিভির প্রতিনিধি আওলাদ হোসেন রুবেল, বিজয়টিভির প্রতিনিধি মো. মামুন তালুকদার, সুবর্ণা বাংলার সম্পাদক আরিফ রেওগীর, সাপ্তাহিক মোমেনশাহী পত্রিকার সম্পাদক মো. মফিজ উদ্দিন, আজকের বাংলাদেশ এর প্রতিনিধি অজয় সরকার, আজকের খবর বার্তা এর সম্পাদক মো. জহির রায়হান, দৈনিক ব্রহ্মপুত্র এক্সপ্রেস এর স্টাফ রিপোর্টার মো. তারিকুল ইসলাম, দৈনিক দিন প্রতিদিন এর প্রতিনিধি মো. উজ্জল খান, দৈনিক শাশ্বত বাংলা এর প্রতিনিধি আল আমিন, দৈনিক দেশজনতার প্রতিনিধি মো. মোসারফ হোসেন জুয়েল, দৈনিক আজকের বাংলাদেশ এর প্রতিনিধি সেলিম আকন্দ, দৈনিক রূপবাণী এর প্রতিনিধি মো. কামরুল জামান মিন্টু, দৈনিক নবকল্যাণ এর প্রতিনিধি রনি বসু, দৈনিক আজকের সংবাদ এর মো. আবু হানিফ রণি, বিডি২৪ লাইভ.কম এর প্রতিনিধি মো. মন্জুরুল ইসলাম, দৈনিক যোগাযোগ এর প্রতিনিধি মো. আরিফ রব্বানী, দৈনিক আমজনতার কথা এর প্রতিনিধি মো. হুসেন আলী, প্রতিদিন সংবাদ এর প্রতিনিধি মো. মারুফ হোসেন কমল প্রমুখ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা হেযবুত তওহীদের সাধারণ সস্পাদক মো. রাজিব আহম্মেদ, ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা হেযবুত তওহীদের সভাপতি মো. আতাউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এজেডএম নাজমুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নুরুজ্জামান প্রমুখ।

Leave A Reply

Pinterest
Print