যেভাবে ভালো রাখবেন আপনার শখের গয়না

0
91

Madhuri-dixit-widescreen-wallpaper-in-high-resolution-free-download1রকমারি ডেস্ক:
অতি সাধাসিধে বলুন আর শৌখিন বলুন, নারী মাত্রই অলংকারের পূজারী। গয়না ভালোবাসেন না এমন নারী বোধহয় খুঁজে পাওয়া যাবে না। তবে হ্যাঁ, কেমন গয়না পছন্দ তা অনেকাংশে নির্ভর করে নারীর রুচি ও বয়সের ওপর। সে যাই হোক, ভালোবাসার এ জিনিসটির যদি একটু খেয়াল রাখা, একটু যতœআত্তি না করা হয় তাহলে কি তা ভালো থাকবে? জেনে নিন কীভাবে ভালো রাখবেন আপনার শখের গয়না।

– সোনা নরম ধাতু। লক্ষ্য রাখতে হবে সোনার গয়না যেন চাপ পড়ে বেঁকে না যায়। নরম কাপড়ে মুড়ে রেখে এমনভাবে রেখে দিন যাতে অন্য গয়নার সাথে জড়িয়ে না যায়।
– প্রসাধনের আগে কখনো সোনার গয়না পরবেন না। সোনার গায়ে ময়েশ্চারাইজার, পারফিউম, হেয়ার স্প্রে, নেইলপলিশ রিমুভার ইত্যাদি প্রসাধন দ্রব্য যেন না লেগে যায়। এসবের রাসায়নিক প্রভাব সোনার গয়নায় তো বটেই, মুক্তা ও বিভিন্ন পাথরেরও খুব ক্ষতি করে। প্রসাধন শেষ করে হাত ধুয়ে মুছে নিন।
তারপর গয়নায় হাত দিন। মনে রাখবেন, গয়না পরবেন সবার শেষে। তারপর আর ডিওডোরেন্ট বা পারফিউম লাগাবেন না।
– দামি পাথরের গয়না পরলে খেয়াল রাখবেন যেন ঝাঁকুনি বা ঠোকা না লাগে। এ ধরনের গয়না পরে কিছু কাজ না করাই ভালো। যেমন বাগানের পরিচর্যা, যন্ত্রপাতি ধরে কোনো কাজ করা, খেলাধুলা বা ডাস্টিং। এতে হিরা বা দামি পাথরের গায়ে চিড় ধরতে পারে।
– মুক্তার গয়না প্রতিবার পরার পর এক টুকরো নরম ও মসৃণ ফ্লানেল দিয়ে মুছে নির্দিষ্ট জায়গায় তুলে রাখুন। মুক্তার গয়না সিল্কের পাউচ বা সিল্ক লাইনিং দেওয়া বাক্সে রাখা উচিত। কখনোই প্লাস্টিকের ব্যাগ বা বাক্সে রাখবেন না।
– রোদের কড়া তাপ, খুব বেশি ঠাণ্ডা বা আগুনের আঁচ – কোনোটাই গয়না বা দামি পাথরের জন্য ভালো নয়। রোদের সংস্পর্শে যেসব দামি রতœ সাধারণত ক্ষতিগ্রস্ত হয় সেগুলো হলো অ্যামেথিস্ট, পান্না, ফিরোজা, লাল ও ধূসর কোয়ার্টজ ইত্যাদি।
– বেড়াতে গিয়ে কোথাও হাত ধোওয়ার সময় হাতের আংটি খুলে বেসিনে রাখবেন না। ব্যাগে সব সময় একটা জুয়েলারি পাউজ রাখুন। আংটি বা অন্য গয়না খোলার প্রয়োজন হলে এর মধ্যে রাখুন।
– বাড়িতে যখনই গয়না পরিষ্কার করবেন, বেসিনের ঝাঁঝরির মুখ বন্ধ করে নেবেন।
– দামি গয়না পরে সুইমিং পুলে সাঁতার কাটবেন না। গয়না খুলে হারিয়ে যাওয়ার ভয় তো থাকেই, পাশাপাশি পুলের পানি যে ক্লোরিন ব্যবহার করা হয় তা গয়নার ক্ষতি করতে পারে।
– গয়না নরম কাপড়ে মুড়ে রাখা উচিত সব সময়। সাটিন লাইনিং দেওয়া ভেলভেটের বাক্স বা বটুয়াতে রাখাই ভালো।
– গয়না আলাদা আলাদা রাখা ভালো যাতে একটির সাথে অন্য ঘষা না খায়, জড়িয়ে বা আটকে না যায়। সোনা বা দামি পাথরের গয়নার সঙ্গে কখনোই ইমিটেশনের গয়না রাখবেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here