৩৩৫ বছর ধরে যুদ্ধেও ঝরেনি এক ফোঁটা রক্ত! যায়নি কারও প্রাণ!

BDPবিচিত্র ডেস্ক: ব্রিটেনের তখন গৃহযুদ্ধ। প্রবল বিরোধিতার সামনে রাজা। তাঁর বিরোধীদের সঙ্গে হাত মেলায় নেদারল্যান্ডস। আইল অফ সিলি-র বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে তাঁরা।চোখ কপালে উঠতেই পারে। কারণ, এতদিন অনেক বড় বড় যুদ্ধের কথা শুনেছেন, কিন্তু এমন যুদ্ধের কথা কি জানতেন, যা চলেছিল ৩৩৫ বছর? এই যুদ্ধ হয়েছিল নেদারল্যান্ডস আর আইল অফ সিলি-র মধ্যে। অবাক হওয়ার আরও বাকি, তিন শতকের বেশি সময় ধরে চলা এই যুদ্ধে একফোঁটা রক্ত তো দূর অস্ত, একটা প্রাণও যায়নি, কেউ জখমও হননি।
কী ভাবে লেগেছিল এই যুদ্ধ? ষোড়শ শতক, ব্রিটেনে প্রয়াত হন রানি প্রথম এলিজাবেথ, সিংহাসনে বসেন তুতো-ভাই স্টুয়ার্টবংশীয় জেমস । সেই প্রথম ব্রিটেনের বৃহৎ শাসনযন্ত্রের আওতাধীন হয়েছিল স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ড। কিন্তু, স্টুয়ার্টদের বিরুদ্ধে সক্রিয় হয়ে ওঠে আয়ারল্যান্ডের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। এই অবস্থায় রাজা জেমসের অপসারণে সরব হন পার্লামেন্টেরিয়ানরা। বিরোধিতা করেন রাজতন্ত্রের অনুগামীরা। দাদাগিরি ফলাতে এগিয়ে আসে নেদারল্যান্ডস। তারা পার্লামেন্টেরিয়ানদের সমর্থন করে ইংলিশ চ্যানেলে যুদ্ধ জাহাজ পাঠিয়ে দেয়। স্টুয়ার্টের অনুগামীরা পাল্টা হামলা করে পিছনে ঠেলে দেয় নেদারল্যান্ডসের নৌবহরকে।
কিন্তু, একটা সময়ে শক্তি খুইয়ে রাজ অনুগতরা পিছু হঠে আইল অফ সিলি-তে তাদের ঘাঁটিতে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। ইতিমধ্যে, আইল অফ সিলি-র সীমানায় ১২টি যুদ্ধ জাহাজ নতুন করে পাঠায় নেদারল্যান্ডস। তাদের লুঠ হওয়া যুদ্ধ জাহাজ ও সামগ্রী ফেরত চায়। দাবি পূরণ না হওয়াতে ১৬৫১ সালে আইল অফ সিলি-র বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে নেদারল্যান্ডস। এরমধ্যে রাজ-অনুগতরা পার্লামেন্টেরিয়ানদের কাছে আত্মসমর্পণ করে। ফলে, সব সমস্যা মিটে যায়। কিন্তু, যুদ্ধবিরতির কথা ঘোষণা না করেই ফিরে যায় নেদারল্যান্ডসের নৌবহর।
যুদ্ধবিরতি যে ঘোষণা হয়নি তা ৩০০ বছর ধরে কারোরই মাথায় ছিল না। রয় ডানকান নামে এক ইতিহাসবিদ তাঁর গবেষণায় সামনে নিয়ে আসেন সমস্ত তথ্য। তিনি ব্রিটেনে থাকা নেদারল্যান্ডস দূতাবাসেও যোগাযোগ করেন। ৩০০ বছর ধরে আড়ালে যুদ্ধ চলছে জেনে অবাক হয়ে যান তাঁরা। শেষমেশ ১৯৮৬ সালে নেদারল্যান্ডস এবং আইল অফ সিলি সই-সাবুদ করে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here