জাকির নায়েক ও পিস টিভি নিয়ে ফেসবুকে বিতর্ক

peace_tv bdপিস টিভি নিয়ে বিতর্ক এখন তুঙ্গে।

অনলাইন ডেস্ক: যারা ফেসবুক ব্যবহার করছেন তাদের অনেকের কাছেই এখন বেশ আলোচিত নাম জাকির নায়েক। গত রোববার সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জাকির নায়েক পরিচালিত ‘পিস টিভি’র’ সম্প্রচার বাংলাদেশে নিষিদ্ধ করা হবে।
এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাকির নায়েক বিষয়ে আলোচনা জোরদার হয়েছে। ‘পিস টিভি’র’ সম্প্রচার বাংলাদেশে বন্ধ করার জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় সোমবার আদেশ জারী করেছে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাকির নায়েকের ছবি ব্যবহার করে ইতিবাচক এবং নেতিবাচক – দু’ধরণের মন্তব্য দেখা যাচ্ছে। অনেকে জাকির নায়েকের বিভিন্ন ভিডিও শেয়ার করেছেন ফেসবুকে। জাকির নায়েকের পিস টিভি বাংলাদেশে নিষিদ্ধ করার জন্য অনেক আগে থেকেই ইসলামী চিন্তাবিদদের একটি অংশ সরকারের কাছে দাবী জানিয়েছিল। সম্প্রতি গুলশান হামলার পরে এই দাবী আরো জোরালো হয়।
ফেসবুকে জাকির নায়েককে নিয়ে আলোচনার একটি বড় কারণ হচ্ছে বাংলাদেশে মি: নায়েক একটি পরিচিত নাম।জাকির নায়েকের ফেসবুক ভেরিফাইড পাতায় দেখা যাচ্ছে সেখানে লাইকের সংখ্যা প্রায় এক কোটি ৪২ লাখ। সম্প্রতি এক ভিডিও বার্তায় জাকির নায়েক দাবী করেছেন তার ফেসবুক পাতায় যারা লাইক দিয়েছেন তাদের মধ্যে প্রায় ৪০ লাখ বাংলাদেশ থেকে।
বিশ্বের অন্য যে কোন দেশের তুলনায় বাংলাদেশ থেকেই মি: নায়েকের ফেসবুক পেজে সবচেয়ে বেশি লাইক রয়েছে বলে তিনি দাবী করেন। জাকির নায়েকের পক্ষ নিয়ে ফেসবুকে সেলিম উদ্দিন নামে একজন লিখেছেন, “ যিনি অত্যন্ত স্পষ্ট ভাষায় বলেছেন, আইএসআইএস মুসলমানই হতে পারেনা, তার বিরুদ্ধেই জঙ্গিবাদের অভিযোগ।”
বাংলাদেশে সরকার এবং ইসলামী চিন্তাবিদদের একটি অংশ মনে করছে জাকির নায়েকের কিছু বক্তব্য সাধারণ মানুষকে জঙ্গিবাদী তৎপরতায় উস্কানি দেয়।সেজন্যই পিস টিভি বন্ধ করা হয়েছে।
মি: নায়েক তার বিরুদ্ধ আনা এসব অভিযোগ সম্প্রতি এক ভিডিও বার্তায় অস্বীকার করেছেন। ফেসবুকে শফিক শিকদার নামে একজন মি: নায়েকের কড়া সমালোচনা করেছেন।
মি: শিকদার লিখেছেন, “ তার (জাকির নায়েক)যাদুকরী, সম্মোহনী স্পীচে বিভ্রান্ত হয়ে পথভ্রষ্ট ও বিপথগামী হয়ে কতো মেধাবী তরুণ কক্ষচ্যুত নক্ষত্রের মতো ঝড়ে গেছে এবং আরো কতো যাবে।”
জাকির নায়েককে ঘিরে ফেসবুকে আলোচনা কিংবা সমালোচনা যাই থাকুক না কেন, তার পরিচালিত ‘পিস টিভি’ যে অনেকের নজরে এসেছে সেটি নিষিদ্ধ করার মধ্য দিয়ে প্রকাশ পেয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here