সাক্ষ্য পাল্টালো ক্রিকেটার শাহাদতের গৃহকর্মী হ্যাপি

shahadatগৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে ক্রিকেটার শাহাদাত হোসেন ও তার স্ত্রী জেসমিন জাহানের বিরুদ্ধে করা মামলায় আদালতে সাক্ষ্য দিতে গিয়ে তার পক্ষেই সাক্ষী দিয়েছে নির্যাতিতা গৃহকর্মী মাহফুজা আক্তার হ্যাপি (১১) ও তার মামা মো. সোহাগ। পরে রাষ্ট্রপক্ষ এই দুই সাক্ষীকে বৈরী ঘোষণা করে জেরা করেছে।
বুধবার দুপুরে ঢাকার ৫ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক তানজিনা ইসমাইল ৩১ আগস্ট পরবর্তী শুনানির জন্য তারিখ ধার্য করেছেন। আদালতে উপস্থিত ছিলেন ক্রিকেটার শাহাদাত হোসেন ও তাঁর স্ত্রী জেসমিন জাহান।
গৃহকর্মী মাহফুজা আজ আদালতকে বলে, ‘আমি ক্রিকেটার শাহাদাত হোসেনের বাসায় কাজ করতাম। সাত মাস কাজ করেছিলাম। কাজ করতে ভালো লাগত না। এ জন্য শাহাদাতের স্ত্রী বকাঝকা করত। দুর্ঘটনায় আমার পা ভেঙে যায়। এ জন্য চিকিত্সা নিই। আসামিরা আমাকে কোনো রকম খুন্তির ছ্যাঁকা দেননি। আগে মানুষের পরামর্শে এই মামলা করি। আমাকে কেউ কিছু জিজ্ঞাসা করে নাই। আমি ম্যাজিস্ট্রেট ও ডাক্তারের কাছে কিছু বলছি কি না, আমার খেয়াল নেই।’
মাহফুজার এই জবানবন্দির পর রাষ্ট্রপক্ষ তাকে বৈরী ঘোষণা করে জেরা করেন। তাকে জেরা করেন সরকারি কৌঁসুলি আলী আজগর স্বপন।
গৃহকর্মী মাহফুজাকে নির্যাতনের অভিযোগে ক্রিকেটার শাহাদাত ও তাঁর স্ত্রী জেসমিনের বিরুদ্ধে গত বছরের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মিরপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন খন্দকার মোজাম্মেল হক। ওই বছরের ২৯ ডিসেম্বর এই মামলায় পুলিশি তদন্ত শেষে শাহাদাত ও জেসমিনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here