কাউনিয়ায় ৭৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা


নিজস্ব সংবাদদাতাঃ
সদ্যগত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুরের কাউনিয়ায় আওয়ামীলীগ প্রার্থীর সমর্থককে হত্যার উদ্দেশে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারপিট করার অভিযোগে উপজেলার হারাগাছ ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপি নেতা রাকিবুল হাসান পলাশসহ ৭৬ জনের বিরুদ্ধে কাউনিয়া থানায় মামলা হয়েছে। থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আওয়ামীলীগের সমর্থক গোলজার হোসেন বাদী হয়ে মঙ্গলবার (০১ জানুয়ারী) রাতে জেলা বিএনপির নেতা ও হারাগাছ ইউপি চেয়ারম্যান রাকিবুল হাসান পলাশ ও তার ছোট ভাই রেজাউল করিম পিয়াসসহ ৩৬ জন এজাহারনামীয় এবং অজ্ঞাত ৪০-৫০ জন বিএনপি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগের প্রার্থীর এজেন্টকে মারধর করে আহত করার অভিযোগে মামলাটি করেন।

মামলার বিবরণের উদ্ধৃতি দিয়ে পুলিশ জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গণনা শেষে ফলাফল সিট নিয়ে গোলজার হোসেনের ছেলে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর এজেন্ট ফরিদুল ইসলাম হারাগাছ দলীয় অফিস আসছিলো। এসময় বিএনপি নেতা ও হারাগাছ ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে তার ভাই রেজাউল করিম পিয়াসসহ অন্যরা ফরিদুল ইসলামের পথরোধ করে তাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। এতে সে গুরুত্বর আহত হয়। পরে তাকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এব্যাপারে আহতের পিতা বাদী হয়ে কাউনিয়া থানায় একটি মামলা করেছেন।

কাউনিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুল ইসলাম বলেন, বে-আইনি ভাবে দলবদ্ধ হয়ে পথরোধ করে হত্যার উদ্দেশে আঘাতের অপরাধে মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশী অভিযান চলছে। অপরদিকে হারাগাছ ইউপি চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা রাকিবুল হাসান পলাশ জানান, রাজনৈতিক ভাবে হয়রানি করতে তার বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়েছে।

এ মামলার ঘটনায় স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঝে হতাশা ও উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here