Bangladesherpatro.com

এমবাপ্পের শততম গোলে শীর্ষে উঠে এলো পিএসজি

2

খেলা ডেস্ক:
কিলিয়ান এমবাপ্পের শততম লিগ গোলে লিঁওকে ৪-২ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে ফরাসি লিগ ওয়ানের শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পিএসজি। দিনের আরেক ম্যাচে দীর্ঘদিন টেবিলের শীর্ষে তাকা লিলি ২-১ গোলে নিমেসের কাছে হতাশাজনক পরাজয় বরণ করলে পিএসজির শীর্ষস্থানে ওঠার সুযোগ সৃষ্টি হয়। গ্রুপামা স্টেডিয়ামে এমবাপ্পে কাল দুই গোল করেছেন। বাকি গোলগুলো করেছেন ডানিলো পেরেইরা ও এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া।

স্বাগতিকদের হয়ে দুই গোল পরিশোধ করেছেন ইসলাম সিলমানি ও ম্যাক্সওয়েল করনেট। এই জয়ে মরিসিও পোচেত্তিনোর দল গোল ব্যবধানে লিলিকে পিছনে ফেলে টেবিলের শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে। ঘরের মাঠে ধুকতে থাকা নিমেসের কাছে পরাজিত হয়ে লিলির সামনে এখন শিরোপা জয়ের চ্যালেঞ্জ হুমকির মুখে পড়েছে। শীর্ষে থাকা দুই দল পিএসজি ও লিলির থেকে তিন পয়েন্ট পিছিয়ে তৃতীয় স্থানেই রয়েছে লিঁও। এক পয়েন্ট পিছিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে মোনাকো। এবারের মৌসুমে এখনো পর্যন্ত ২০ গোল করে লিগ ওয়ানের গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন এমবাপ্পে।

মাত্র ২২ বছর বয়সে ফরাসী শীর্ষ লিগে ১৪২ ম্যাচে তিনি শততম গোলের দেখা পেলেন। রেলিগেশন খড়ায় থাকা নঁতের কাছে গত সপ্তাহে ঘরের মাঠে ২-১ গোলে হতাশাজনক পরাজয়ের পর কালকের রাতটি ছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের ফিরে আসার জন্য দারুন এক সুযোগ যা তারা পুরোপুরি কাজে লাগিয়েছে। এবারের মৌসুমে সরাসরি কোন শিরোপা প্রত্যাশী দলের বিপক্ষে প্রথম জয় তুলে নিল পিএসজি। প্রায় দেড় মাস পর কাল ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরেছিলেন নেইমার।

দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝিতে এমবাপ্পের বদলী হিসেবে তিনি মাঠে নামেন। ম্যাচের ১৫ মিনিটে মার্কো ভেরাত্তির শট রুখে দেন লিঁও গোলরক্ষক এন্থনি লোপেজ। ফিরতি বলে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন এমবাপ্পে। ৩২ মিনিটে মারকুইনহোসের সহায়তায় পেরেইরা ব্যবধান দ্বিগুন করেন। বিরতির পরপরই ফ্রি-কিক থেকে ব্যবধান ৩-০ তে নিয়ে যান ডি মারিয়া ৫২ মিনিটে ভেরাত্তির সহযোগিতায় দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন এমবাপ্পে। আলজেরিয়ান স্ট্রাইকার সিলমানি বক্সেও ঠিক বাইরে থেকে জোড়ালো শটে ৬২ মিনিটে লিঁওর হয়ে প্রথম গোলটি করেন। ম্যাচ শেষের ১০ মিনিট আগে করনেট আরো এক গোল দিলে লিঁও ব্যবধানই শুধু কমিয়েছে।

আন্তর্জাতিক বিরতি শেষে আগামী ৩ এপ্রিল আরো এক জমাট লড়াইয়ে লিলিকে আতিথ্য দিবে পিএসজি। ধুকতে থাকা নিমেসকে পরাজিত করলে কাল লিলি শীর্ষে থেকেই আন্তর্জাতিক বিরতিতে যেতে পারতো। কিন্তু সেনেগালিস স্ট্রাইকার মৌসা কোনে ও অধিনায়ক রেনাড রিপার্টের গোলে সফরকারীদের জয় নিশ্চিত হয়। যদিও জেকা ২০ মিনিটে লিলির হয়ে সমতা ফিরিয়েছিলেন।

সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপা লিগ ও ফরাসি কাপ থেকে বিদায় নেয়া লিলি লিগেও নিজেদের এগিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.