Connect with us

ঢাকা বিভাগ

নরসিংদীতে ওয়াজ-মাহফিলে উস্কানি, হুমকি ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

Avatar photo

Published

on

নরসিংদী প্রতিনিধি:
নরসিংদীর ইটাখোলায় ওয়াজ-মাহফিলের আড়ালে হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে উস্কানি, হুমকি ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সোমবার (২৩ জানুয়ারি ২০২৩) বিকেলে নরসিংদী জেলা প্রেসক্লাব হলরুমে হেযবুত তওহীদ নরসিংদী জেলা শাখার আয়োজনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য পেশ করেন হেযবুত তওহীদের নরসিংদী জেলা স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক গাজী শাহিদুল হাসান আইয়ুবী, সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সিলেট বিভাগীয় আমির আলী হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনের মূল বক্তব্যে গাজী শাহিদুল হাসান আইয়ুবী বলেন, গত ২১ ডিসেম্বর ২০২৩ রোজ শনিবার নরসিংদী ইটাখোলা ইদগাহ মাঠে, যেখান হেযবুত তওহীদের নরসিংদী জেলা কার্যালয় অবস্থিত, সেখানে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে ওয়াজ-মাহফিলের নামে একটি সমাবেশ ডাকা হয়। উক্ত সমাবেশে হেযবুত তওহীদের আস্তানা ভেঙ্গে দাও, গুড়িয়ে দাও স্লোগান দেয় ওয়াজকারীরা। হেযবুত তওহীদকে প্রকাশ্যে শতশত মুসল্লির সামনে ইহুদির দালাল, খ্রিষ্টান, নাস্তিক, ইসলামের শত্রু ইত্যাদি বলে গালাগালি করে। এক পর্যায়ে হেযবুত তওহীদ সদস্যদেরকে হত্যার হুমকি ও উস্কানি দিতে থাকে। এরই প্রতিবাদে সোমবার এ সংবাদ সম্মেলন করে হেযবুত তওহীদ।

গাজী শাহিদুল হাসান আইয়ুবী বলেন, হেযবুত তওহীদ বিগত ২৮ বছর ধরে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মব্যবসা ইত্যাদির বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ইসলামের সঠিক আদর্শ প্রচার করছে। আমাদের এই কাজ মানবতার কল্যাণে, সম্পূর্ণ নিঃস্বার্থভাবে। আমাদের এই মহতী কাজে প্রথম থেকেই বাধা দিয়ে আসছে ধর্মব্যবসায়ী একটি গোষ্ঠী, যারা নানান উপায়ে পবিত্র ধর্ম ইসলামকে ব্যবহার করে নিজেদের স্বার্থ উদ্ধার করে থাকে এবং ধর্মকে তাদের রুটিরুজির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে থাকে। এই গোষ্ঠীটি আমাদের নামে জঘন্য মিথ্যা, বানোয়াট, আজগুবি কথা বানিয়ে ওয়াজ শুনতে আসা ধর্মপ্রাণ মুসুল্লির সামনে ওয়াজ মাহফিলে, খোতবায় ও অনলাইনে প্রচার করছে, আক্রমণের হুমকি দিচ্ছে।

হুজুগ-গুজব সৃষ্টিকারী গোষ্ঠীটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকারের উদ্দ্যেশ্যে তিনি বলেন, “বাংলাদেশ একটি শাসনতান্ত্রিক রাষ্ট্র, এখানে আইন-কানুন রয়েছে। তারা আইনের তোয়াক্কা না করে হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে এভাবে প্রকাশ্যে মিথ্যাচার করেছে, হুমকি দিয়েছে। এতে করে আমাদের সদস্যদের জান-মাল হুমকির মধ্যে পড়েছে। এই ধর্মান্ধ, উগ্রবাদী, সাম্প্রদায়িক, ধর্মব্যবসায়ী এবং এদের অন্ধ অনুসারীদের দ্বারা যে কোনো সময়ে, যে কোনো স্থানে আক্রান্ত হতে পারি। এই ধরনের বে-আইনী সমাবেশ করে শান্তিপূর্ণ পরিবেশকে অশান্ত করে তোলার জন্য এই গোষ্ঠীটি উঠে পড়ে লেগেছে।” এসময় সরকার ও প্রশাসনের নিকট এই উগ্রবাদীদের মিথ্যাচার এবং হুমকির বিরুদ্ধে অতিদ্রুত যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করার আহ্বান জানান গাজী শাহিদুল হাসান আইয়ুবী।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী জেলা সাধারণ সম্পাদক মাহে আলম কাজী, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফারুক মিয়া, সংগঠনের সদর শাখার সভাপতি আক্কাস আলী, পলাশ উপজেলা সভাপতি ও জেলা শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক মোকছেদ আলী, মনোহরদী উপজেলা সভাপতি আল আমিন ভূঁইয়া, রায়পুরা উপজেলা সভাপতি মোঃ মঞ্জুর মিয়া, শিবপুর উপজেলা সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, দৈনিক দেশেরপত্র জেলা প্রতিনিধি রেজাউল করিম, শিবপুর প্রতিনিধি আলম মৃধা, দেশেরকন্ঠ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এস. আলম, গণমুক্তির জেলা প্রতিনিধি মিজানসহ হেযবুত তওহীদের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এবং জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ঢাকা বিভাগ

ব্যাংকের ভেতর থেকে দুই আনসার সদস্যের লাশ উদ্ধার

Avatar photo

Published

on

নরসিংদীর রায়পুরায় অগ্রণী ব্যাংকের একটি শাখার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা দুই আনসার সদস্যের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৮ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার আদিয়াবাদ ইউনিয়নের রাধাগঞ্জ বাজারে অবস্থিত ব্যাংকটির স্টোররুম থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন-টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি উপজেলার দড়িচন্দ্রবাড়ী এলাকার মো. মজিবর রহমানের ছেলে মো. রঞ্জু মিয়া (৩২) ও ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার পূর্বসদরদী এলাকার সিদ্দিক ফকিরের ছেলে তৌহিদুল আলম (২৪)।

পুলিশ ও ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানায়, আনসার সদস্য তৌহিদুল ছয় মাস ও রঞ্জু চার মাস ধরে ব্যাংকটির নিরাপত্তাকর্মীর দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। আজ সকালে ব্যাংকের এক পরিচ্ছন্নতাকর্মী এসে দেখতে পান কলাপসিবল গেটটি খোলা। এর ভেতরে আরেকটি দরজা ভেতর থেকে আটকানো। এ সময় ব্যাংকের ভেতর একটি জেনারেটর চালু ছিল। ওই পরিচ্ছন্নতাকর্মী দুই আনসার সদস্যকে বাইরে থেকে অনেক ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়া পাননি। পরে তিনি ব্যাংক কর্মকর্তাদের ঘটনাটি মুঠোফোনে অবহিত করলে তারা পুলিশকে খবর দেন।

এরপর রায়পুরা থানার পুলিশ গিয়ে ব্যাংক কর্মকর্তা ও স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতিতে দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে ব্যাংকের স্টোররুমের চৌকির ওপর দুই আনসার সদস্যের লাশ দেখতে পান।

ব্যাংকের ভল্টসহ সব নথি রক্ষিত আছে দাবি করে অগ্রণী ব্যাংকের নরসিংদী আঞ্চলিক প্রধান শাহাজান খান বলেন, ‘নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ওই দুই আনসার স্টোররুমের চৌকিতে বিশ্রাম নিতেন। তাদের মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে। ‘

নরসিংদী পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে জানান, অগ্রণী ব্যাংকের স্টোররুমের চৌকির ওপর দুই আনসার সদস্যের একজনকে শোয়া ও অপরজনকে বসা অবস্থায় পেয়েছি। তবে নিহতদের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।

লাশ দুটি সুরতহাল শেষে নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট আসার পর তাদের মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য জানা যাবে বলে জানান তিনি।

Continue Reading

Highlights

কেরাণীগঞ্জের কুখ্যাত সন্ত্রাসী ও মাদক সম্রাট কালা জরিপ অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেফতার

Avatar photo

Published

on

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকা হতে কুখ্যাত সন্ত্রাসী ও মাদক সম্রাট জরিপ ওরফে কালা জরিপকে অস্ত্র, মাদক ও সহযোগীসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০। বুধবার ভোর রাত্রে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন হাসনাবাদ এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে।

র‌্যাব-১০ জানায়, অভিযানকালে কুখ্যাত সন্ত্রাসী ও মাদক সম্রাট মো. জরিপ মিয়া ওরফে কালা জরিপ (৪০), তার সহযোগী মো. আনিসুর রহমান (৩৮), মো. জাহিদ ওরফে বাবু (৪৫) ও ঝুমুর আক্তার (২৬)’ কে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের নিকট থেকে ০১টি বিদেশী পিস্তল, ০১টি ম্যাগজিন, ০১ রাউন্ড এ্যামুনেশন (গুলি), ০১টি টেজার গান, ০১টি এয়ার পিস্তল, ০১টি রাম দা, ০১টি ছোরা, ০১টি চাকু, ০১টি লোহার এসএস পাইপ, ০১টি কাঠের লাঠি, ৫৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ০৪ বোতল বিদেশী মদ, ০১টি গাড়ি, ০৭টি মোবাইল ফোন ও নগদ এক লক্ষ চুরানব্বই হাজার পাঁচশত টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা কেরাণীগঞ্জ এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ও অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী বাহিনীর সক্রিয় সদস্য। যাদের মূল নেতৃত্বে রয়েছে কালা জরিপ। জরিপের নেতৃত্বে কেরাণীগঞ্জসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় মাদক ব্যবসা, অবৈধ ভূমি দখল, চাঁদাবাজি, ধর্ষণ ও হত্যাসহ বিভিন্ন প্রকার সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালিত হয়। তাদের কাজে কেউ বাঁধা প্রদান করলে জরিপ ও তার সহযোগীরা বাঁধা প্রদানকারীদের বিভিন্ন প্রকার হুমকি, মারধর ও স্বার্থ উদ্ধারে তাদের হত্যা করতো বলে জানা যায়।

র‌্যাব আরও জানায়, গ্রেফতারকৃত মো. জরিপ মিয়া ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন হাসনাবাদ এলাকায় ডিস ব্যবসার আড়ালে প্রায় ১৫ বছর যাবত তার সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা অবৈধ ভূমি দখল ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্নি সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। এইসব কাজে কেউ বাঁধা প্রদান করলে তার নেতৃত্বে বাধাদানকারীকে মারধর এবং প্রয়োজনে তাকে হত্যা করতেও দ্বিধাবোধ করত না। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মাদক, মারামারি, চাঁদাবাজি ও হত্যা মামলাসহ ১০টি মামলাসহ অনেক অভিযোগ রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় নিয়মিত মামলা রুজুর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব-১০।

Continue Reading

Highlights

জাজিরায় ট্রাকের পেছনে ধাক্কা লেগে অ্যাম্বুলেন্সের ৬ আরোহী নিহত

Avatar photo

Published

on

শরীয়তপুরের জাজিরা এলাকায় ট্রাক পেছনে ধাক্কা লেগে অ্যাম্বুলেন্সের ছয় আরোহী নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার নওডোবা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- রোগী জাহানারা বেগম (৫৫), স্বাস্থ্যকর্মী ফজলে রাব্বি (২৮), রোগীর মেয়ে লুৎফুন নাহার লিমা (৩০), গাড়ি চালক জ্বিলানি (২৮), চালকের সহকারী রবিউল ইসলাম (২৬) ও সাংবাদিক মাসুদ রানা (৩০)।

শরীয়তপুর জেলা ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী উপ-পরিচালক মো. সেলিম মিয়া জানান, ভোরে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী অ্যাম্বুলেন্সটি নওডোবা এলাকায় পৌঁছানোর পর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঢাকাগামী একটি ট্রাকের পেছন ধাক্কা দেয়। এতে অ্যাম্বুলেন্সে থাকা ছয় জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। তবে তাদের নামপরিচয় পাওয়া যায়নি।

পদ্মাসেতু দক্ষিণ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুরুজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, হঠাৎ করেই থানার পাশে বিকট চিৎকার চেচামেচি শুনে উঠে আসি। এসে দেখি দূর্ঘটনার স্বীকার হয়ে ঘটনাস্থলেই ছয় জন নিহত হয়েছেন। পরে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিয়ে এনে তাদের নিয়ে গাড়ি ও লাশগুলো আমরা উদ্ধার করি।

Continue Reading