Bangladesherpatro.com

বিসিবিকে পাঠানো চিঠিতে যা লিখেছিলেন সাকিব

7

খেলা ডেস্ক:
ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ চলার সময় আইপিএল খেলার অনুমতি চেয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী বরাবর ‘ছুটির’ আবেদন করেছিলেন সাকিব আল হাসান। ‘সেই আবেদনের কোথাও উল্লেখ নেই শ্রীলঙ্কায় টেস্ট খেলতে চাই না’- শনিবার এক লাইভ সাক্ষাৎকারে সাকিব এই দাবি করেছেন। পাশাপাশি এই অলরাউন্ডার অভিযোগের তীর ছোঁড়েন ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খানের দিকে।

তার অভিযোগ, চিঠিটি পড়ে দেখেননি আকরাম। আলোচিত সেই চিঠি প্রকাশের পর সাকিবের দাবির সত্যতা মিলেছে। সাকিব চিঠিতে টেস্ট খেলার ব্যাপারে কিছু লেখেননি। শুধু আইপিএল খেলার অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছিলেন। এমনকি সাকিব কতদিনের জন্য ছুটি চাইছেন, সেই ব্যাপারেও কিছু বলেননি। বিসিবিই সাকিবকে ছুটির সময়কাল উল্লেখ করে দিয়েছে। বাঁহাতি অলরাউন্ডারকে ১ এপ্রিল থেকে ১৮ মে পর্যন্ত ছুটি দিয়েছিল বিসিবি।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণ সংস্থার প্রধান নির্বাহী বরাবর ছুটির আবেদন করে সাকিব লিখেছেন-
‘জনাব, আমি, সাকিব আল হাসান যথাবিহীত সম্মানের সঙ্গে জানাতে চাই, আমরা ২০২১ সালের অক্টোবর মাসে ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছি। আমাদের জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি টুর্নামেন্ট। আমি বিশ্বাস করি, সামনের আইপিএলে অংশ নেওয়া আমাকে মর্যাদাপূর্ণ এই টুর্নামেন্টের প্রস্তুতির সেরা সুযোগ করে দেবে। আমি জানি যে, আইপিএলের সময় বিসিবি শ্রীলঙ্কায় একটি সফর আয়োজন করার পরিকল্পনা করছে।’ সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে আমাকে সামনের আইপিএলে অংশ নেওয়ার অনুমতি দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য সেরা প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

ধন্যবাদান্তে, সাকিব আল হাসান। ক্রিকেটার, বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল।’ শ্রীলঙ্কা সফরে না গিয়ে আইপিএল বেছে নেওয়ার পর থেকে অনেক সমালোচনা হচ্ছিল সাকিবকে নিয়ে। তখন এ কথাই শোনা যাচ্ছিল যে, দীর্ঘ সংস্করণে খেলতে তিনি আগ্রহী নন! কিন্তু শনিবার লাইভে সেসব তথ্য উড়িয়ে দিয়ে সাকিব বলেছিলেন, ‘এ বিষয়টা বারবারই আসছে। আসলে আমি বিসিবিকে যে চিঠি দিয়েছি, সেটা কেউ পড়েইনি। ওই চিঠিতে আমি কোথাও বলিনি যে টেস্ট খেলতে চাই না। আমি সেখানে এটা পরিষ্কার করে দিয়েছি, আমার আইপিএল খেলার কারণ আসলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি।’

এরপরই তিনি দাবি করেন যে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান বিভ্রান্ত করেছেন সবাইকে, ‘কিন্তু আকরাম ভাই সবাইকে বলে যাচ্ছে যে আমি টেস্ট খেলতে চাই না। আমার মনে হয়, তিনি আমার চিঠি পড়েননি। তারা আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, কিন্তু আমার চিঠিটা তারা পড়েননি।’ অথচ সাকিবকে ছুটি দেওয়ার পর আকরাম খান বলেছিলেন, ‘শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ থেকে সরে দাঁড়াতে সাকিব আমাদের সম্প্রতি চিঠি দিয়েছে। আমরা তাকে অনুমতি দিয়েছি। কারণ, যার খেলার (জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট) কোনও আগ্রহ নেই, তাকে জোর করার কোনও মানে নেই।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.