Connect with us

দেশজুড়ে

রাজশাহীতে তিন সাংবাদিকের মামলা প্রত্যাহারের ঘোষণা

Published

on

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, রাজশাহী:
রাজশাহীতে তিন সাংবাদিকের নামে দায়ের করা নাশকতা মামলা প্রত্যাহার করা হবে বলে অবশেষে ঘোষণা দিয়েছেন মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শামসুদ্দিন। সেই সাথে কেন ওই তিন সাংবাদিককে মামলায় জড়ানো হয়েছে তাও তদন্ত করে দায়ী পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি। শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজশাহী সার্কিট হাউজে অনুষ্ঠিত এক সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন।
জানা যায়, দৈনিক যুগান্তরের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান আনু মোস্তফা, প্রথম আলোর ফটোসাংবাদিক শহীদুল ইসলাম দুখু ও চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের ক্যামেরাপার্সন রায়হানের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগ এনে গেল ফেব্র“য়ারি মাসে মামলা করে পুলিশ। এসব মামলায় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বাস পোড়ানো ও পুলিশের ওপর ককটেল হামলার মতো অভিযোগ আনা হয়।
এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠে সাংবাদিক সমাজসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ ও মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও সভা-সমাবেশসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়।
সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে চরম ক্ষোভ জানান স্থানীয় সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র এএরইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার প্রমুখ।
শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজশাহী সার্কিট হাউজে অনুষ্ঠিত সভায় ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেন, সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। এতে জনপ্রতিনিধি ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হচ্ছে। কারণ, যাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে তারা প্রত্যেকেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দৃঢ় বিশ্বাসী সাংবাদিক। তারা সব সময় অন্যায়ের বিরুদ্ধে কাজ করেছেন। এসময় তিনি তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তদন্ত করে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রত্যাহারে পুলিশকে নির্দেশ দেন। একইভাবে পুলিশের এই মামলাকে ষড়যন্ত্রমূলক বলে আখ্যা দেন সাবেক মেয়র লিটন।
মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শামসুদ্দিন বলেন, নগরীর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সাম্প্রতিক সময়ে পুলিশকে কঠোর হতে হয়েছে। তবে কেন সাংবাদিকদের মামলায় জড়াানো হয়েছে তা জানতে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসিসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের শোকজ করা হচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত করে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলো প্রত্যাহারে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। মামলায় জড়ানোর জন্য তিনি সাংবাদিকদের কাছে দুঃখও প্রকাশ করেন।
সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি আনোয়ারুল আলম ফটিক, রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সাধারণ সম্পাদক মামুন আর রশিদ, প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক আবুল কালাম মুহম্মদ আজাদ, রাজশাহী ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও অনলাইনের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *