Connect with us

দেশজুড়ে

লালমনিরহাটে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানের উপহার নিয়ে সংঘর্ষ

Published

on

kkkkkkk-nরাহেবুল ইসলাম টিটুল, আদিতমারী: লালমনিরহাটের আদিতমারীতে বিদায় অনুষ্ঠানে উপহার দেয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৭ এসএসসি পরীক্ষার্থী। গতকাল শনিবার (৩০জানুয়ারী) বিকেলে আদিতমারী উপজেলার নামুড়ি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ, শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা জানান, নামুড়ি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের স্কুল শাখার এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান বৃহস্পতিবার সম্পন্ন হয়। অনুষ্ঠান শেষে বিদায়ী শিক্ষার্থীরা বিলাশ ও সাগরের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করে সবাই মিলে দেড়শত থেকে দুই শত টাকা হারে চাদা প্রদান করেন। বিদায়ী শিক্ষার্থীদের আদায়কৃত অর্থে দুইটি দেয়াল ঘড়ি ক্রয় করে শনিবার সকল শিক্ষার্থী তাদের উপহার তুলে দিতে প্রতিষ্ঠান প্রধান এন্তাজুলের নিকট যান। কিন্তু প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষক রুহুল আমিন পাটোয়ারী শিক্ষার্থীদের উপহারের ঘড়ি দুইটি ফিরায়ে দিয়ে রঙ্গিন টিভি ও কয়েকটি ফ্যান উপহার হিসেবে শিক্ষার্থীদের কাছে দাবি তুলেন। শিক্ষার্থীরা একাধিকবার প্রধান শিক্ষকের হাতে উপহার তুলে দিতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে ফিরে আসে। পরে তাদের একটি গ্রæপ আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে উপহারের একটি ঘড়ি ছিনিয়ে নিলে উভয় পক্ষের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থীদের সাথে যুক্ত হন স্থানীয় অভিভাবকরাও। শুরু হয় তুমুল সংঘর্ষ। খবর পেয়ে আদিতমারী থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন। এতে বিলাশ, সাগর, আসাদুজ্জামান, আকতারুজ্জামানসহ কমপক্ষে ৭জন পরীক্ষার্থী আহত হয়েছে। তারা পুলিশী
ঝামেলা এড়াতে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছেপ্রতিষ্ঠানের অফিস সুত্রে জানা গেছে, চলতি বছর এ বিদ্যালয় থেকে নিয়মিত ৮৭জনসহ মোট ১২৭জন পরীক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠানিক ভাবে পরীক্ষার্থীদের বিদায় দেয়া হয়। নামুড়ি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ
এন্তাজুর রহমান উপহার দাবি করা অস্বীকার করে জানান, শিক্ষার্থীদের মাঝে ভুলবুঝা বুঝির কারনে এমন পরিস্থিতির সৃষ্ঠি হয়েছে । তা কমিটিকে নিয়ে সমাধান করা হবে। নামুড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আব্দুর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে সমাধানের চেষ্টা চলছে। আদিতমারী থানা ওসি (তদন্ত) আব্দুস সোবহান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অফিসার পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে যেহেতু তারা পরীক্ষার্থী তাই প্রতিষ্ঠান প্রধানকে সমাধানের জন্য বলা হয়েছে।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *