Connect with us

গাইবান্ধা

সুন্দরগঞ্জের একটি সাঁকোর বদলে সেতু নির্মাণ; যোগাযোগে প্রভুত উন্নয়ন

Avatar photo

Published

on

Gaibandha PHOTO-01গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা) প্রতিনিধি: লেংগা খালের উপর একটি সাঁকোর বদলে সেতু নির্মাণ করে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নে অবহেলিত যোগাযোগ ব্যবস্থার প্রভুত উন্নয়ন করা হয়েছে। সেতুটির নামকরণ করা হয়েছে সোনার বাংলা সাঁকো। ফলে ওই ইউনিয়নের পশ্চিমরাজিবপুর, নতুন বাজার ও ধোপাডাঙ্গাসহ ৬টি গ্রামের প্রায় ৫০ মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থা প্রভুত উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।
জানা গেছে, লেংগা খালের উপর নির্মিত বাঁশের সাঁকো দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ওইসব এলাকার সর্বস্তরের মানুষ অতিকষ্টে এবং ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় যাতায়াত করে আসছিল। স্থানীয় সাংসদ মঞ্জুরুল ইসলামের উদ্যোগে প্রায় ৮ লাখ টাকা ব্যয়ে সেই সাঁকো স্থানান্তর করে সেখানে নির্মাণ করা হয়েছে একটি সেতু। সেতুটির দৈর্ঘ্য ৯৬ ফুট ও প্রস্থ ৬ ফুট। শুধু তাই নয়, ওই সেতুতে রাতে পারাপারের সুবিধার জন্য সেতুতে বসানো হয়েছে সৌর বিদ্যুৎ। সেতু নির্মাণে সময় লাগে প্রায় দুই বছর। সেতুটির উদ্বোধন করেন সুন্দরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। এব্যাপারে তিনি বলেন, বিশেষ টিআর (টেষ্ট রিলিফ) ও কাবিখা (কাজের বিনিময়ে খাদ্য) প্রকল্পের কাজ শতভাগ হয়না। এই কাজ করতে গিয়ে আমাদের সুনাম ক্ষুন্ন হয়, অনেক প্রশ্ন উঠে। তাই নিজস্ব তহবিল, বিশেষ টিআর ও কাবিখা প্রকল্পের টাকা দিয়ে সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে। কারণ টিআর দিয়ে সড়কে মাটির কাজে সরকারের অপচয় হয়। কিন্তু এটি দৃশ্যমান ও স্থায়ী।
ওই সেতুটি নির্মাণ করার ফলে পুর্বরাজিবপুর, মন্ডলেরহাট ও মাঠেরহাট গ্রামের মানুষ ১৫ কি.মি. ঘুরে ধোপাডাঙ্গা বাজার থেকে জেলা শহরে এবং উপজেলা সদরে যাতায়াত করতো। বিশেষ করে স্কুলগামি ছাত্রছাত্রীদের ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় যাতায়াত করতে হতো। আগে কোন যানবাহন চলাচল করতো না বলে মালামাল পরিবহনও বিঘ্নিত হতো। অথচ এখন সহজেই রিকশা-ভ্যান, অটোরিকশা ও মোটরসাইকেল নিয়ে চলাচল করা যাবে।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

গাইবান্ধা

পলাশবাড়িতে বাস-ট্রাক-মোটরসাইকেলের ত্রি-মুখী সংঘর্ষে নিহত ৩

Avatar photo

Published

on

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে বাস, ট্রাক ও দ্রুতগতির দুটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হয়েছে।

সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার রংপুর-ঢাকা মহাসড়কর চৌমাথা মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এছাড়াও আহত হয়েছে আরও দুজন। নিহতরা সবাই মোটরসাইকেল আরোহী ছিলেন।

নিহতরা হলেন- পলাশবাড়ী উপজেলার কয়ারপাড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে বিদ্যুৎ সরকার ( ৪২), মির্জাপুর গ্রামের গনেশ চন্দ্রের ছেলে সুভাস চন্দ্র (৩৫) ও জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার অভিরামপুর গ্রামের সুভাস চন্দ্রের ছেলে সুমন চন্দ্র (৩৫)।

স্থানীয়রা জানান, ঢাকা থেকে বরকত পরিবহনের বেপরোয়া গতির একটি বাস রংপুরের দিকে যাচ্ছিল। পথে চৌমাথা মোড়ে বাসটি দুটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। পরে নিয়ন্ত্রণহীন বাসটির সঙ্গে বিপরীতমুখী পণ্যবাহী একটি ট্রাকের সংঘর্ষ ঘটে। স্থানীয়রা তিনজনকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে দায়িত্বরত ডাক্তার তাদের মৃত ঘেষণা করেন। পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আনিছুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা জানান, দুর্ঘটনার পর পরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। চালক পালিয়ে গেলেও বাস ও ট্রাকটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

Continue Reading

গাইবান্ধা

গাইবান্ধায় কলম-ক্যামেরা রেখে সাংবাদিকদের অবস্থান কর্মসূচি পালিত

Avatar photo

Published

on

অনিয়ম অভিযোগের তথ্য তুলে ধরে সংবাদ প্রকাশের জেরে দেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ঢাকাপোস্টডটকম’র সম্পাদক মহিউদ্দিন সরকার ও গাইবান্ধা প্রতিনিধি রিপন আকন্দের নামে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে প্রেস ক্লাব গাইবান্ধার আয়োজনে তৃতীয় দিনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে কলম বিরতি, ক্যামেরা ডাউন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

রবিবার সকাল ১১টায় শহরের গোরস্থান মোড়ে প্রেসক্লাব গাইবান্ধা কার্যালয়ের সামনে এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে গণমাধ্যম কর্মীদের নামে মিথ্যা হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সভাপতি খালেদ হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাভেদ হোসেনের সার্বিক পরিচালনায় তিনঘন্টা ব্যাপি চলমান প্রতিবাদ কর্মসূচিতে গাইবান্ধা প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ সাংবাদিক জোট গাইবান্ধা জেলা শাখা, পলাশবাড়ী, গোবিন্দগঞ্জ ও ফুলছড়ি উপজেলা প্রেসক্লাবসহ জেলার অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠনের প্রায় দুই শতাধিক গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে হয়রানিমূলক এই মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে গত রোববার (৮জানুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রেসক্লাব গাইবান্ধায় এক জরুরি বৈঠকে এই কলম বিরতি, ক্যামেরা ডাউন ও অবস্থান কর্মসূচি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়া বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত (১০ জানুয়ারি) জেলা শহরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন ও (১২ জানুয়ারি) বিভাগীয় কমিশনারের কাছে স্বারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সভাপতি খালেদ হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান রাজু, সহ-সভাপতি শাহজাহান সিরাজ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জোবায়দুর রহমান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সালাম আশেকী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাসান মোস্তফা জাহিদ, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক লাল চান বিশ্বাস সুমন, পলাশবাড়ী প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম রতন, পলাশবাড়ী রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, ফুলছড়ি প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান বাবু, এসএ টিভির কায়ছার প্লাবন, সাংবাদিক আসাদুজ্জামান মিলন প্রমুখ।

এছাড়া প্রতিবাদ কর্মসূচির দুর্নীতি ও সংবাদের মূল ঘটনা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন মামলার শিকার ঢাকাপোস্টের গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি ও প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সাংগঠনিক সম্পাদক রিপন আকন্দ ও বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সিনিয়র সহ-সভাপতি রবিন সেন।

বক্তারা মহিউদ্দিন সরকার, রিপন আকন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও প্রেসক্লাব গাইবান্ধার সহ-সভাপতি রবিন সেনের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মানহানির মামলারও তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়। এছাড়া সেই ঘটনার তদন্ত কমিটি গঠনের দাবিও করেন তারা।

উল্লেখ্য, গত ১৬ নভেম্বর ‘ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে দেশ সেরা মাল্টিমিডিয়া অনলাইন নিউজ পোর্টাল ঢাকাপোস্টডটকম। মসজিদ সংস্কারের সরকারি অর্থ চেয়ারম্যান মোসাব্বির আত্মসাত করার বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পেলে এলাকায় বেশ চাঞ্চ্যল্যের সৃষ্টি হয়। ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। এমন দুর্নীতির ঘটনা ধামাচাপা দিতে গত ৮ জানুয়ারি ঢাকাপোস্টের সম্পাদক মহিউদ্দিন সরকার ও গাইবান্ধা প্রতিনিধি রিপন আকন্দের নামে হয়রাণীমূলক, মিথ্যা চাঁদাবাজি ও আইসিটি আইনে মামলা করেন হত্যা মামলার জেলখাটা আসামি চেয়ারম্যান মোসাব্বির।

Continue Reading

গাইবান্ধা

গাইবান্ধায় ১৯ কেজি গাঁজা ও প্রাইভেটকার আটক

Avatar photo

Published

on

রিপন হাসান, গাইবান্ধা:
গাইবান্ধায় ১৯ কেজি গাঁজা ও একটি প্রাইভেটকার আটক করেছে ট্রাফিক পুলিশ। সোমবার (৯ জানুয়ারি) রাত ৯.৩০ টার দিকে গাইবান্ধা শহরের পুরাতন বাজার সংলগ্ন গোলচত্বর থেকে এসব গ্রেফতার করা হয়। তবে এ সময় ডাইভার ও তার সহকারী পালিয়ে যায়।

গাইবান্ধা জেলা ট্রাফিক পুলিশের ইনর্চাজ এডমিন মো. নুর আলম সিদ্দিক জানান, রাতে নিয়মিত গোলচত্বরে ডিউটি করছিল ট্রাফিক পুলিশের টিএসআই জসিম উদ্দিনসহ ট্রাফিক পুলিশের কয়েকজন সদস্য। এ সময় সুন্দরগঞ্জ রোড থেকে আসা একটি প্রাইভেটকারকে কাগজপত্র দেখানোর জন্য থামতে বললে কৌশলে প্রথমে একজন ও পরে ড্রাইভার পালিয়ে যায়।

পরে কারটি তল্লাশি করে ভেতর থেকে তিনটি পলিতে মোড়ানো ১৯ কেজি ৪০০ গ্রাম গাঁজা ও একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মাদকদ্রব্য আইনে মামলা করা হবে বলে জানান মো. নুর আলম সিদ্দিক।

Continue Reading