Bangladesherpatro.com

উত্তর কোরিয়ার পরীক্ষা চালানো মিসাইল জাপানকে আঘাত করতে সক্ষম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
উত্তর কোরিয়া এমন এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে যেটি জাপানকে আঘাত করতে সক্ষম বলে সে দেশের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে। সরকারি বার্তা সংস্থা কেসিএনএ সোমবার বলছে, সপ্তাহান্তে চালানো এই পরীক্ষায় মিসাইলটি ১,৫০০ কিলোমিটার দূরত্ব পাড়ি দিয়েছে। অর্থনৈতিক ও খাদ্য সঙ্কট থাকার পরও উত্তর কোরিয়া অস্ত্র তৈরিতে সক্ষম বলে খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার এই পরীক্ষার নিন্দা করে বলেছে, ঐ অঞ্চলের নিরাপত্তার জন্য এটি বড় একটি হুমকি তৈরি করেছে। জাপান সরকারও বলেছে, এই পরীক্ষা তাদের জন্য উদ্বেগ তৈরি করেছে। উত্তর কোরিয়ার সংবাদপত্র রোডং সিনমুন যেসব ছবি প্রকাশ করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে, একটি উৎক্ষেপণ যান থেকে একটি ক্রুজ মিসাইল ছোঁড়া হচ্ছে। অন্য একটি ছবিতে ক্ষেপণাস্ত্রটিকে আকাশে ভেসে যেতে দেখা যাচ্ছে।

এই ক্ষেপণাস্ত্রটির “কৌশলগত গুরুত্ব অপরিসীম” বলে বর্ণনা কেসিএনএ-র খবর মন্তব্য করা হয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, শনি ও রোববার এই ক্ষেপণাস্ত্রের দুটি পরীক্ষা চালানো হয়। দুটি পরীক্ষাতেই মিসাইল উত্তর কোরিয়ার জলসীমার ভেতরে লক্ষ্যবস্তু ভেদ করতে সক্ষম হয়। উত্তর কোরিয়া বিষয়ক বিশেষজ্ঞ অঙ্কিত পান্ডার মতে, এটি সে দেশের প্রথম দীর্ঘ-পাল্লার মিসাইল যেটি পরমাণু অস্ত্র বহন করার ক্ষমতা রাখে।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ উত্তর কোরিয়ার আন্ত-মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিষিদ্ধ করেছে। কিন্তু এ ধরনের ক্রুজ মিসাইলের পরীক্ষার ওপর কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। নিরাপত্তা পরিষদ মনে করে, ব্যালিস্টিক মিসাইল অনেক বড় হুমকি সৃষ্টি করতে পারে – কারণ এর পাল্লা যেমন দীর্ঘ হয়, তেমনি এটি বড় আকারের এবং শক্তিশালী বোমা বহন করতে পারে। ব্যালিস্টিক মিসাইল পরিচালিত হয় রকেট দিয়ে – যেটির গতিপথ অর্ধ চন্দ্রাকৃতির হয়। অন্যদিকে, ক্রুজ মিসাইল জেট ইঞ্জিন দিয়ে চালিত হয় এবং এর উচ্চতা তুলনামূলক ভাবে কম।

Leave A Reply

Your email address will not be published.