Bangladesherpatro.com

সরবরাহ থাকলেও কমছে না সবজির দাম

নিউজ ডেস্ক:
খুলনা নগরীর বাজারে সবজির সরবরাহ থাকলেও কমছে না নিত্যপ্রয়োজনীয় সবধরনের সবজির দাম। ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের কারণে বৃদ্ধি পাচ্ছে সবজির দাম। আর দাম নিয়ন্ত্রণে না আসায় বিপাকে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষ। সবজির দাম কেজিপ্রতি অন্তত দুই টাকা বেড়েছে।

শনিবার নগরীর বিভিন্ন খুচরা বাজারে মানভেদে প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ৮০ টাকা, বেগুন ৫০ থেকে ৬০ টাকা, ঢেঁড়স ৪০ টাকা, ঝিঙে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, উচ্ছে ৬০ টাকা, কুশি ৪০ টাকা, আলু ২২ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৫০ টাকা, কাঁকরোল ৪০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, পটোল ৩০ থেকে ৪০ টাকা, মিষ্টিকুমড়া ৩০ টাকা, কাঁচকলা প্রতিহালি ৩০ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

সপ্তাহখানেক আগে মানভেদে প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ৬০ টাকা, বেগুন ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৩০ টাকা, ঝিঙে ৩০ টাকা, উচ্ছে ৬০ টাকা, কুশি ৩০ থেকে ৪০ টাকা, আলু ২০ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, কাঁকরোল ৩০ থেকে ৪০ টাকা, পেঁপে ২৫ টাকা, পটোল ৩০ টাকা, মিষ্টিকুমড়া ২০ থেকে ২৫ টাকা, কাঁচকলা প্রতিহালি ২৫-৩০ টাকা, কচুরমুখি ৩০ টাকা দরে বিক্রি হয়।

নগরীর শের-এ-বাংলা রোডস্থ সন্ধ্যা বাজারের ব্যবসায়ী মো. মাসুম ও মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, বাজারে সবজির যথেষ্ট সরবরাহ আছে। সবজির সরবরাহ যত বাড়তে শুরু করবে দামও ধীরে ধীরে কমতে থাকবে।

নগরীর শের-এ-বাংলা রোডস্থ কেসিসি সন্ধ্যা বাজারে আসা চিংড়ি ব্যবসায়ী মো. জামিরুল ইসলাম বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় সবজির মূল্য দিন দিন যেন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাজারে টাটকা সবজির সরবরাহ প্রচুর। এরপরও দাম কমছে না। বাজার দর মনিটরিং ব্যবস্থা না থাকায় দাম কমছে না বলে মন্তব্য করেন তিনি। নগরীর অ্যাপ্রোচ রোডস্থ রূপসা সুপার মার্কেটে আসা ক্রেতা রনজিত মন্ডল বলেন, বাজার দর নিয়ন্ত্রণে নেই। সবজিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সবধরনের জিনিস ও পণ্যের দাম বেড়েই চলেছে। বাজার দর মনিটরিং না থাকায় দাম কমছে না। ফলে বিপাকে পড়েছেন ভোক্তারা। দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.